পাতা:গল্পসল্প - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিজ্ঞানী বঁাচা গেল, বাচা গেল। শুনছ গিন্নি ? ১৩ নম্বর শিবু সমাদারের গলি । আর ভাবনা নেই। শুনে আমার মাথামুণ্ডু হবে কী। একটা ঠিকানা পাওয়া গেল । সে তো পাওয়া গেল। এখন দুটো বাড়ির ভাড়া সামলাবে কেমন করে । সে কথা পরে হবে । কিন্তু বাড়ির নম্বর ১৩, গলির নাম শিবু সমাদারের গলি । কেরানির হাত ধরে বললে, ভায়া, বাচালে আমাকে । তোমার নাম কী বলো, আমি নোট-বইয়ে লিখে রাখি। পকেট চাপড়ে বললে, ঐ যা । নোট-বই আছে এলাহাবাদে। মুখস্থ করে রাখব— ১৩ নম্বর, শিবু সমাদারের গলি । কুসমি বললে, এই কলম হারানো ব্যাপারটা তো সামান্য কথা । যেদিন ওঁর এক-পাটি চটিজুতো পাওয়া যাচ্ছিল না সেদিন নীলমণিবাবুর ঘরে কী ধুন্ধুমারই বেধে গিয়েছিল। ওঁর স্ত্রী পণ করলেন, তিনি বাপের বাড়ি চলে যাবেন । চাকর-বাকররা এক-জোট হয়ে বললে, যদি এক-পাটি চটিজুতো নিয়ে তাদের সন্দেহ করা হয় তবে তার কাজে ইস্তফা দেবে— তার উপরে সে চটিতে তিন তালি দেওয়া । আমি বললুম, খবরটা আমারও কানে এসেছিল ; দেখলেম, ব্যাপারটা গুরুতর হয়ে দাড়িয়েছে। গেলুম নীলুর বাড়িতে। বললুম, ভায়া, তোমার চটি হারিয়েছে ? সে বললে, দাদা, হারায় নি, চুরি গিয়েছে, আমি তার প্রমাণ দিতে পারি। S a