পাতা:গল্পস্বল্প.djvu/৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


( २४ ) t নীলকরের দাওয়ান নবীন ঘোষের বাড়ী আজ পূজার বড় ধূম। কিন্তু সে পূজায় আবালবৃদ্ধ বনিতা যত সুখী হইত,এপূজায় যেন । তাহাদের তত মুখ হয় না। উঠানে বালক ও যুবকের দাড়াইয়া আছে, এখনই বলিদান হইবে; এই সকল আয়োজন সোধয় যুবকদিগের মনে সেই ছেলেবেলার কথা জাগিয়া উঠিতেছে। চাটুয্যে মহাশয় কেমন ভাল লোক ছিলেন, তাহার জ্যেষ্ঠ পুত্র কেমন সকলের সহিত প্রিয় সম্ভাষণ পূৰ্ব্বক কথাবাৰ্ত্ত কহিতেন। অমনবনিয়েদিঘর—একেবারে উৎসন্ন গেল! আর এই নবীন ঘোষ দুদিন আগে লাঙ্গল ধরিতে ধরিতে যাহার প্রাণ গিয়াছে—তিনি আজ বাবু হইয়া কাহারও প্রতি চাহিয়া একটি কথা কহেন না! পূৰ্ব্ববৎ অনুষ্ঠান শেষ হইলে ছাগ শিশু হাড়িকাঠে বন্ধ হইল, কামার খঙ্গ উঠাইতে উদ্যত হইয়াছে, এমন সময় একটা কোলাহল পড়িয়া গেল। পুরোহিত বলিলেন, “নব কামার, তুমি থাম—থাম” ৷ হারুর মা চুটিয়া আসিয়া বলিল, “ঠাকুরমহাশয়, নব কামার, যেন এবার পাট বলি না দেয়, কৰ্ত্তাম রাগ করিতেছেন। আর বারে সে এক কোপে কাটিতে পারে নাই—সেই অমঙ্গলে আমাদের দাদাবাবুর খোকাটি মারা গেল—এবার যেন নব খাড়া হাতে না করে।” অবিলম্বে রামার মা শুামার মা দৌড়িয়া আসিয়া ঐ একই কথা বলিতে লাগিল। স্বয়ং বাড়ীর কর্তা নবীন ঘোষ দৌড়িয়া আসিয়া বলিলেন—“ঠাকুরমহাশয় নব কামারকে খাড়া ছুইতে দিবেন না—তাহা হইলে মা এবার রক্ষা রাথিবেন না”। উঠানে একটু গোলমাল বাধি গেল,সকলে বলিয়া উঠিল— “(ಘ್ বাগদান কুরিব? আর একজনকামার গকি:আন”।