পাতা:গল্পাঞ্জলি.djvu/১৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*ஆக গল্পাঞ্জলি ছিল একগাছা বাট । নিমেষ মধ্যে সেইটা দুই হস্তে ধরিয়া গৃহিণীর উপর সপাসপ মারিতে আরম্ভ করিল। সঙ্গে সঙ্গে বলিতে লাগিল— “কেন ?—কেন ?—আর কি মরবার জায়গা পেলে না ? -জায়গা পেলে না 7—আমার সোমামি ছাড়া কি তোমার মেয়ের অন্ত পাত্তর জুটলে লা ?—জুটলো না ?”— এই অভাবনীয় ঘটনায় বাড়ীর লোকে ক্ষণকালের জন্ত হতবুদ্ধি কইয় গেল। তাহার পর মহা গণ্ডগোল আরম্ভ হইল । অল্পবয়স্ক বলিকার ৰাদিয়া ছুটিয়া কেহ খাটের নীচে, কেহ সিন্দুকের আড়ালে লুকাইল। ৰাড়ীর কি বসিয়া বাসন মাজিতেছিল, সে বাসন ফেলিয়া—“ওরে খুন কল্পে ৰে—খুন কল্লে রে—সেপাই—এ সেপাই—এ পাহারাওয়ালা”—বলিয়" উৰ্দ্ধশ্বাসে ছুটিয়া রাস্তায় বাহির হইয়া পড়িল । বাড়ীর অপর মেয়েরা আসিয়া রসময়ীকে ধরিয়া ফেলিল । রসময়ী তখন গৃহিণীকে ছাড়িয়া তাহাদের উপর কিল চড় ও নিষ্ঠীবন-বৃষ্টি কৱিন্তে লাগিল । কাহারও কাপড় ছিড়িয়া দিল, কাহারও চুল ছিড়ির দিল, কাহাকেও থামচাইয়া দিল, কাহাকেও কামড়াইয়া দিল । হাফাইতে হাম্বাইতে বলিতে লাগিল—“কনেটি গেল কোথা ? তাকে একবার বের কর না । চোখ দুটো গেলে দিয়ে যাই । নাকটা কেটে দিয়ে ৰাই । দাতগুলো ভেঙ্গে দিয়ে যাই।” বিনোদিনী এতক্ষণ চুপ করিয়া দাড়াইয়া ছিল। ক্রমে সদর দরজায় লোক জমিয়া হৈ হৈ করিতে লাগিল। তখন সে বলিল—“রসমী— খাম থাম—ক্ষ্যাম দে বোন—খুব হয়েছে। চল বাড়ী চল ।” কি ছুটির বাড়ীতে প্রবেশ করিয়া বলিল—“ওগো যেতে দিওনিখানায় খবর দিয়ে এসেছি, দারোগ আসছে।” পুলিসের নাম শুনিয়া রসময়ী বলিল—“চল দিদি, চল ।”