পাতা:গল্পাঞ্জলি.djvu/১৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


- ** গল্পাঞ্জলি মনোহর বাবু একটু বিরক্তির সহিত বলিলেন—“মশায়, জিনিষটা হাসি তামাসার নয়। এসব গভীর বিষয় । অনেক চর্চা, অনেক আলোচনা না করে এ বিষয়ে মতামত প্রকাশ করা উচিত নয়। ভৌতিক জগং থেকে ডাকে চিঠি আসা এই প্রথম নয় । হিমালয় থেকে মহাত্মারাও মাঝে মাঝে ডাকে চিঠিপত্র লিখে থাকেন । কুটুম্বিলাল নামক এক মহাত্মা এ রকম অনেক চিঠি আমাদের মাদাম ব্লাভাট স্কিকে লিখেছিলেন । তারাও মনে করলে সাক্ষাৎ আবির্ভাব হয়ে ৰক্তব্য ৰলে যেতে পারতেন--কিম্বা চিঠি উড়িয়ে টেবিলের উপর ফেলে যেতে পারতেন—কিন্তু ডাকেই তারা চিঠিপত্র পাঠাতেন ।” ইহা শুনিয়া শিক্ষিত মোক্তার বাবু মৃদু মৃদু হাস্ত করিতে লাগিলেন। বলিলেন—“কুটুম্বিলালের চিঠি ত কোন কালে জাল বলে সাবাস্ত হয়ে -গেছে । ডাক্তার হজসন বলে একজন বৈজ্ঞানিক নিজে ভারতবর্ষে এসে এ বিষয়ে অনুসন্ধান করে প্রমাণ করে দিয়েছেন যে মাদাম ব্লাভাট স্কি ক্ষার দামোদর বলে একব্যক্তি মিলে ঐ সব চিঠি জাল করেছিলেন ।” এ কথা শুনিয়া থিয়জফিষ্ট বাবুট ভ্রুকুঞ্চিত করিয়া বিরক্তির স্বরে ৰলিলেন—*ও সব ঈর্ষ্যাপরায়ণ লেখকের বই পড়বেন না । আমার কাছে আসবেন, ভাল ভাল বই সব আপনাকে পড়তে দেব। তা পড়লে আপনার সমস্ত অবিশ্বাস দূর হয়ে যাবে। মাদাম ব্লাভাট স্কি যে কতৰভু লোক তা তার "আইসিস আন্‌ভেন্ড বইটে পড়লেই বুঝতে পারবেন।” সুরেন্দ্র বাবু মুচকিয়া হাসিয়া বলিলেন—“সে বইটে পড়িনি বটে, তবে এডমণ্ড গ্যারেট প্রণীত 'আইসিস্ ভেরি মচ, আনভেল্ড—অর দি ষ্টোরি অব দি গ্রেট মাহাত্মা হোক্স’ বইটে পড়েছি । লাইব্রেরিতে আছে । দেখতে চান ত এনে দিতে পারি।” এ কথায় মনোহর বাবু রাগিয়া আগুন হইয়া উঠিলেন । বলিলেন— i