পাতা:গল্পাঞ্জলি.djvu/১৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>b* গল্পাঞ্জলি ব্যবসায়ের প্রতি মুখোপাধ্যায়ের আর সে অনুরাগ নাই—বড় বিরক্ত হইয়া উঠিয়াছেন। ছোকরা মোক্তারগণ, যাহাদিগকে এক সময় উলঙ্গাবস্থায় পথে খেলা করিতে দেখিয়াছেন, তাহারা এখন শাম্বলী মাথায় দিয়া (মুখোপাধ্যায় মাথায় পাগড়ী বাধিতেন, সেকালে মোক্তারগণ শামল ব্যবহার করিতেন না ) তাহার প্রতিপক্ষে দাড়াইয়া চোখ মুখ ঘুরাইয়া ফৰু ফৰ্ব করিয়া ইংরাজিতে হাকিমকে কি বলিতে থাকে, তিনি কিছুই বুঝিতে পারেন না। পাশ্বস্থিত ইংরাজিজানা জুনিয়ারকে জিজ্ঞাসা করেন,—“উনি কি বলছেন ?”—জুনিয়ার তর্জমা করিয়া তাহাকে বুঝাইতে বুঝাইতে অন্ত প্রসঙ্গ উপস্থিত হয়, মুথের জবাব মুখেই রহিয়া যায়—নিস্ফল রোষে তিনি ফুলিতে থাকেন। তাহ ছাড়া, পূৰ্ব্বে হাকিমগণ মুখুর্য্যে মহাশয়কে যেরূপ শ্রদ্ধার চক্ষে দেখিতেন, এখনকার নব্য হাকিমগণ আর তাহা করেন না । ইহাদের যেন বিশ্বাস, যে ইংরাজি জানে না, সে মনুষ্যপদবাচ্যই নহে। এই সকল কারণে মুখোপাধ্যায় স্থির করিয়াছেন, কৰ্ম্ম হইতে এখন অবসর গ্রহণ করাই শ্ৰেয়ঃ। তিনি যাহা সঞ্চয় করিয়াছেন, তাহার স্বদ হইতে কোনও রকমে সংসারযাত্রা নিৰ্ব্বাহ করিবেন। প্রায় ষাট বৎসর বয়স হইল—চিরকালই কি খাটিবেন ? বিশ্রামের সময় কি হয় নাই ? বড় ছেলেটি যদি মানুষ হইত—দুইটাক ৰদি রোজগার করিতে পারিত —তাহা হইলে এতদিন কোন কালে মুখোপাধ্যায় মহাশয় অবসর লইতেন, বাড়ীতে বসিয়া হরিনাম করিতেন। কিন্তু আর বেশী দিন চলে না। তথাপি আজি কালি করিয়া আরও এক বৎসর কাটিল । এই সময় দায়রায় একটি খুনী মোকৰ্দমা উপস্থিত হইল। সেই মোকৰ্দমার আসামী জয়রাম মুখোপাধ্যায়কে নিজ মোক্তার নিযুক্ত করিল। একজন নূতন ইংরাজ জজ আসিয়াছেন–র্তাহারই এজলাসে বিচার। *