পাতা:গল্পাঞ্জলি.djvu/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাল্যবন্ধু સ્વ: চরটে কয়েক টান টানিয়া বিপিনবাবু বলিলেন--“আমার বিবেচনায় একখান ছোট খাট ভাড়াটে বাড়ী খুজে নেওয়াই তোমার উচিত । উপরে একখানি কি দুখানি শোবার ঘর, নীচে একখানি রান্নাঘর, একখানি ভাড়ার ঘর, আর, কল পাইখানা থাকবে—এই হলেই তোমার সন্ধুলান তৰুে বাবে । তা এ রকম একখানি বাড়ী, সহরের ভিতর অবিশ্যি বেশী লাগবে, এ ভবানীপুর অঞ্চলে খুজলে দশ পনের টাকাতেও পেতে পার । হচ্ছে কর ত আমার সরকারকে বলি, খুজে দেবে এখন। বড় বাড়ী তোমার দরকারই বা কি ? তোমরা স্ত্রী পুরুষে, একটি ছেলে একটি মেয়ে বঙ্গ ত নয়, ঐ রকম একখানি ছোট বাড়ীতে বেশ সস্কুলান হয়ে বাবে এখন । কি বল ?” নলিনী কথা কহিল না -- মাথা হেট করিয়া কি ভাবিতে লাগিল । কিয়ৎক্ষণ অপেক্ষা করিয়া বিপিনবাবু বলিলেন—“বলব সরকারকে খুঁজে দেখতে ?” . নলিনী উচ্চকণ্ঠে বলিল—“থাক—র্তাকে আর কষ্ট দিয়ে কি হবে— আমিই খুজে নিতে পারব। অনেক দয়াই ত করলে, আর একটু যদি দয়া কর, তা হলে আর নতুন বাড়ী খোজার দরকার হবে না। না খেতে পেয়ে, আমরা স্ত্রী পুরুষ ত বেণী দিন বঁাচব না। আমরা মরে গেলে, মামাদের ছেলে মেয়েই বা বেঁচে থাকবে কেমন করে ? তুমি দয়ার সাগর, দয়া করে সময়টা একটু বাড়িয়ে দাও। সাতদিনের জায়গায় একমাস করে দাও । ষে বাড়ীতে জন্মেছি—সে বাড়ীতেই মরি । তোমার ঐ বাড়ীতে একমাস থাকতে থাকতেই সব সাফ হয়ে যাবে এখন।” কথাগুলা যেন প্রেতের মত অট্টহাস্য কৱিতে করিতে সেই কক্ষমধ্যে ছুটিয়া বেড়াইতে লাগিল। তাহাদের বিকট অঙ্গপ্রত্যঙ্গ হইতে, ষেন