পাতা:গল্পাঞ্জলি.djvu/৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাল্যবন্ধু <ዓ এই পর্য্যন্ত বলিয়। বিপিনবাবু অৰ্দ্ধমিনিট কাল নীরব হইলেন । তাহার পর স্বর নামাইয়া বলিলেন—“এ অবস্থায় নূতন বাড়ী খুঁজে সেখানে গিয়ে বসা—মাসে মাসে তার ভাড়া যোগানো—তোমার পক্ষে ভারি অসুবিধাজনক হবে । তাই আমি তোমার কাছে একটা প্রস্তাব করছি । তোমার বসতবাড়ীখানি আমি এক বছরের জন্তে তোমায় ছেড়ে দিচ্ছি। তুমি যদি চেষ্টা কর, আমার বিশ্বাস এই একবছরের মধ্যে তুমি নিজের অবস্থার অন্ততঃ এটুকু উন্নতি করে নিতে পারবে, যাতে বাড়ীভাড়া দিয়ে এই কলকাতা সহরে সপরিবারে গৃহস্থের মত বাস করতে পার। আজ তারিখ থেকে একবৎসর পর্য্যন্ত তুমি ও বাড়ীতে বাস কর।” কথা শেষ হইবা মাত্ৰ নলিনী উঠিয়া দাড়াইল । ব্যঙ্গস্বরে বলিল— “বাল্যবন্ধু - ধন্যবাদ —এই অসাধারণ দয়ার জন্তে ধন্যবাদ। পাদ্রীসাহেব— এই অযাচিত উপদেশের জন্যে ধন্যবাদ।”-- বলিয়া নলিনী দ্রুত বাহির হইয়া গেল । 事 虧 চতুর্থ পরিচ্ছেদ । কক্ষের বাহির হইয়া বারান্দায় নলিনী ঘড়ি দেখিল, বেল তখন পৌনে দশটা ৷ ফটকের বাহির হইয়া, হরিশ মুখুয্যের স্ট্রীট ধরিয়া দ্রুতপদে উত্তরমুখে চলিতে লাগিল। ক্রমে যখন সে ময়দানে আসিয়া পৌছিল, তখন তাঙ্গার ললাট ঘৰ্ম্মসিক্ত—ক্লান্ত হইয়া পড়িয়াছে। কুর কুর করিয়া মিঠা হাওয়া দিতেছিল। একটা বৃহৎ বটবৃক্ষের ছায়ায় নলিনী বিশ্রামার্থ দাড়াইল । অদূরে চৌরঙ্গির অগণ্য সৌধশ্রেণী। ঘণ্টা বাজাইয়া, হু হু করিয়া আফিসযাত্রী-বোঝাই ট্রামগাড়ী ছুটিতেছে। কৰ্ম্মকোলাহলের অন্ত নাই ।