পাতা:গল্পাঞ্জলি.djvu/৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\o)ら গল্পাঞ্জলি নিকটে গিয়া বুঝিল, তক্তার উপর সেইদিনকার সংবাদপত্ৰখানি অংশে ংশে লগ্ন রহিয়াছে। অধিকাংশ লোকেই কৰ্ম্মখালির বিজ্ঞাপন পাঠ করিতেছে । ইহাই ত নলিনী চায় । সেও মনোযোগসহকারে বিজ্ঞাপনগুলি পড়িতে লাগিল। কিছুক্ষণ এইরূপে অতিবাহিত হইলে পর তাহার মনে হইল, অন্ততঃ দুইটি বিজ্ঞাপন আছে যাহা তাঙ্গার কাষে লাগিতে পারে । অন্তান্ত ব্যক্তিগণ, কেহ বা পকেটবুকে, কেহ বা ফাস কাগজে নিজ নিজ মনোমত বিজ্ঞাপনগুলি টুকিয়া লইতেছিল । কিন্তু নলিনীর পকেটে ত কাগজ ও নাই, পেন্সিল ও নাই, কিনিয়া লইবার পয়দাও নাই। প্রথমে সে ভাবিল, বিজ্ঞাপন দুইটা মুখস্ত করিয়া লইবে । মুখস্থ করিতে আরম্ভ করিয়া দেপিল, তাতার মাথা ঠিক নাই, মুখস্থ হইতেছে না । তখন হতাশ হইয়া ইতস্ততঃ চাহিতে চাহিতে দেখিল, একথান থিয়েটারের হাণ্ডবিল কাগজ পথে পড়িয়া রহিয়াছে। নলিনী সেটি কুড়াইয়া লইল । কাগজ সংগ্ৰহ হইল। পেন্সিলের কি হয় ? একজন ইউরেশিয়ান সাহেব, ময়লাটুপী ছিন্ন কোট পরিয়া, সেখানে দাড়াইয়া বিজ্ঞাপন টুকিতেছিল। লেখা শেষ হইবামাত্র, নলিনী ঠাষ্ঠীর নিকট গিয়া হিন্দিতে বলিল—“সাহেব, পেন্সিলটা একবার দিতে পার ?” এই অনুরোধে সাহেব চক্ষু রাঙ্গাইয়া বলিল-—“গেট আউট ইউ ড্যাম নিগার ” মুহূৰ্ত্তমধ্যে নলিনী, সাহেবের গণ্ডে এক প্রবল চপেটাঘাত করিল । বাঙ্গালী হস্তের স্বদেশী চড় খাইয়া সাহেব প্রথমটা হতভম্ব হইয়া গেল। একটু পরেই, আস্তিন গুটাইয়া নলিনীকে সে আক্রমণ করিল। তখন দুইজনে ঘোর বাহুযুদ্ধ বাধিয়া গেল । দেখিতে দেখিতে