পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/১৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ঢাকার বাঙ্গাল ১২৩ সনেীতিকে তুমি ত দেখেছ। ডায়োসিজনে পড়ছে, এবার ম্যাট্রিক পরীক্ষা দেবে, তাও বোধ হয় শুনেছে। ওর বিবাহ দেবার জন্যে, গিমাঁ কিন্তু বড়ই ব্যস্ত হয়ে উঠেছেন। যেখানে যেখানে পারe দেখা হল, কোথাও তেমন পছন্দ হল না।—তোমাকে গির্ষণী কি সনজরে দেখেছেন জানিনে. ওঁর ভরি ইচ্ছে হয়েছে, তোমার হাতেই সনৌতিকে সমপণ করেন।”—বলিয়া রায় বাহাদর নীরব হইলেন। পরেশও লজ্জিতভাবে মাথাটি হেটি করিয়া নীরবে বসিয়া রহিল। প্রায় একমিনিট পরে, রায় বাহাদর আবার বলিতে লাগিলেন, “সনেীতিকে তোমার পছন্দ কি না জানি না। আর, তোমার মা বেচে রযেছেন, তাঁরও মতামত নেওয়া অবশ্য দরকার। আরও একটা কথা বলে রাখি। যদি অন্য বাধা না থাকুে, তবে তুমি সেদিন যে বাধার কথা উল্লেখ করেছিলে যে উপাজনক্ষম না হলে তুমি করবে না, সে বিষযের একটা ব্যবস্থা আমি করতে পারবো। তুমি বোধ হয় জান যে লাটসাহেব আমায় বিশেষ অনুগ্রহ করেন। তাঁকে ধরে, তোমার একটা কিনারা অামি করে দিতে পারবো বোধ হয়।” পবেশ প্রায় জড়িত স্বরে ধীরে ধীরে উত্তব করিল, “আজ্ঞে, আপমি যা বললেন, এ ত আমার আশার অতীত, পরম সৌভাগ্যের বিষয। তবে, মাকে একবার জিজ্ঞাসা করা দককার। তাঁর মত না নিয়ে—” রায় বাহাদর বাধা দিয়া বলিলেন, “সে ত নিশ্চয়—আমি ত তা আগেই বলেছি। তুমি তাঁকে চিঠিতে সব কথা লেখ । কিবা, না হয় বাড়ীই যাও, মুখে তাঁকে সব কথা বল। আর, তিনি যদি মেয়ে দেখতে চান, তাঁকে সঙ্গে করেও এখানে আনতে পার।" পবেশ বলিল, “আজ্ঞে, সেই বোধ হয় ভাল হবে।” বেশ, তবে তাই যাও । কথাটা পাকা হযে গেলেই, তোমাকে আমি লাটসাহেবের কাছে নিযে যেতে চাই ৷” পরেশ আর কি বলিবে পিথর করিতে না পারিয়া কেবলমাত্র বলিল, “আজ্ঞে হে হে!— আপনার যথেস্ট অনুগ্রহ ।” পরদিনই সন্ধ্যার ট্রেণে পরেশ ঢাকা মাত্রা করিল। এখানে চাকরি করিতে করিতে, আর দুইবাব সে বাড়ী গিয়াছিল—শিয়ালদহে গিয়াছিল, ভাড়াটিয়া অশবযানে। এবার রায় বাহাদরের নিজের মোটর গাড়ী তাহাকে টেশনে পেপছিয়া দিয়া আসিল । গত দইবার বাড়ী যাইতে নিজ পকেট হইতে তাহাকে কটসঞ্চিত অথ বাহির করিতে হইয়াছিল। এবার উলটা কিছর লভ্য হইল,—রায বাহাদর স্বতঃপ্রবত্ত হইয়া তাহাকে দ্বিতীয টিকিটই খরিদ করিল। চার পাঁচদিন পরে পরেশ বাড়ী হইতে ফিরিয়া আসিয়া সংবাদ দিল, তার মা জ্যেঠাইমা উভয়েই এ বিবাহে মত দিয়াছেন এবং বলিয়াছেন, “আমরা এখন বউমকে দেখবো না। আদিনে অক্ষণে কি দেখতে আছে ? বিয়ের পর যখন বউ বরণ করে ঘরে তুলবো সেই সময় মুখ দেখবো।” এখন হইতে গহিণী, আহারাদি ও অন্যান্য বিষয়ে পরেশকে আরও বেশী যত্ন করিতে লাগিলেন। লাটসাহেবের নিকট উপস্থিত হইবার উপযুক্ত পোষাক, রায় বাহাদর নিজ ব্যয়েই পরেশকে তৈয়ারী করাইয়া দিলেন। এবং একদিন অবসর মত, লাটসাহেবের নিকট তাহাকে