পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/১৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


$ళలి.8 श्;-्श्ाबलौ। ब्राइज । आभि यजिजाभ, “आधाग्न भाश कब्र नदलौजा, आभाग्न शफ़हे अनाग्न श्रुघ्न श८छ् । rBB DD DDSDDD BDD DDDD DDD DDD DDD DDD BBB BBS बीजग्ना उाक्षारक छैनिम्ना शिझानाम्न व्णष्ट्रेयाग्न छना बाह्य क्षाकृद्देजान्न। नदलौला ए*ा९ मरव्र जब्रिग्ना बाजव्न, “ञाश्रान्त्र छ:८ग्ना ना ॥" তাহার এই ভাব দেখিয়া আমি বড়ই বিস্মিত হইলাম। জিজ্ঞাসা করিলাম, “কেন, आश्चि दङाञान्न टझौंद ना रुकन नछाड्यौला ?” • উত্তর—“আমার পানে বেশ করে চেয়ে দেখ দেখি—আমি কি তোমার সশীলা ?” তাহার মাত্তি'র গান্ডীয দেখিয়া ভয়ে আমার কণ্ঠ শতক হইয়া উঠিল। বলিলাম, “নিশ্চয়ই তুমি কুমার সশীলা।" 粵 উত্তর পাইলাম—“না, আমি তোমার সশীলা নই। তোমার সুশীলাকে ওয়ালটেয়ারে চিতার আগমনে পড়িয়ে এসেছি। আমি হতভাগিনী পিপলো।”—বলিয়া সে চোখে ठाग्छळ मिळ । বিশ্ববরন্ধান্ড কক্ষচ্যুত হইয়া যেন আমার চারিদিকে ঘুরিতে লাগিল। আমি নারায়ণ সমরণ করিয়া চক্ষ মুদিলাম। আমার দেহ কাঁপিতে লাগিল। আর বসিয়া থাকিতে পারিলাম না—শয্যায় এলাইয়া পড়িলাম। প্রায় পাঁচ মিনিটকাল এইরুপ বিহবল হইয়া ছিলাম। তাহার পর আবার চক্ষ খলিলাম। একদণ্টে সশীলা বা পিপলো যেই হোক—তাহার মুখপানে চাহিয়া রহিলাম –সশীলাই ত—কে বলিল পিপলা? অন্যে দুইজনের পাথক্য বঝিতে না পার্ক—যাহার সঙ্গে আমি ছয় বৎসর ঘর করিয়াছি—তাহার সম্ভবন্ধে আমারও কি ভ্রম হওয়া সম্ভব ? বলিলাম, “তোমার এ কি নিষ্ঠর পরিহাস, সুশীলা ?” “পরিহাস নয়। সত্যিই সশীলাকে যমে নিয়ে গেছে।” “তবে যে বাবা আমাকে লিখেছিলেন, পিপলো মারা গেছে।” “বাবার তখন মাথার ঠিক ছিল না, তাই ওরকম লিখেছিলেন। “কি বল তুমি ?” “যা সত্য ঘটনা, তাই আমি তোমায় বলছি। সুশীলাকে পড়িয়ে এসে, পবদিন বাবা মাকে বললেন—এখানে আমাদের কেউ চেনে না—সুশীলা মরেনি, হতভাগিনী পিপলাই মরেছে। এ বয়সে পিপলার বৈধব্যবেশ আমি চোখে দেখতে পারছিলাম না —দিন-রাত আমার বকে চিতার আগন জলছিল। আজ থেকে ও আর পিপলা নয়, ও স.শীলা-ও গিয়ে ওর স্বামীর ঘর করুক।” আমি বপন দেখিতেছি, না জাগিয়া আছি, কিছুই বুঝিতে পারলাম না, বলিলাম, “মা শনে কি বললেন ?” “মা বললেন, ছি ছি, তাও কি হয় ? পিপলা সশীলা সেজে গিয়ে স্বামীর ঘর করবে কি ? জামাই কি এ জাল ধরতে পারবে না ? বাইরের লোক না পারকে, তুমি আমি যেমন ঠিক চিনি কোনটি পিপলা, জামাইও নিশ্চয় সেই রকম চিনবে যে, এ সুশীলা নয়। তখন কি উপায় হবে ? অাব যদি ধর, জামাই চিনতে না-ও পারে, —হি’দর মুেয়ের পরলোক বলেও ত একটা জিনিষ আছে ? জালিয়াত করে, ইহলোকে দুদিন না হয় পিপলা সখভোগ করে নিলে। তারপর—পরলোকে কি উপায় হবে ?” —বলিয়া পিপলা চপ করিল। আমি কিয়ৎক্ষণ নীরবে থাকিয়া ব্যাপাবটা তলাইয়া বুঝিতে চেষ্টা করিলাম। কিয়ৎক্ষণ পরে বলিলাম, “তারপর ?” “তারপর বাবা বললেন, আমি তোমাদের ও সব পরলোক-ফরলোক মানিনে।’ মা বললেন, “তা না মানতে পার, কিন্তু মানুষে মানুষে সত্য ব্যবহার আর জালজয়াচুরির