পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/১৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


సిరి ప్రి গল্প-গ্রন্থাবলী এলাম-বসন্তকেও সঙ্গে নিয়ে এলাম ৩৪ দিন তাকে বাড়ীতে রাখলাম, যেতে দিলাম না। দেখলাম, ছেলেটি রপে, গণে, বিদ্যায়, বংশে, সব বিষয়েই ভাল, কেবল মায় দোষ—গরীব। বললে দালালী করে, মেসে থাকে, সামান্য আয়, মা-বাপ নেই, বাড়ী-ঘর নেই, তাই এত দিন আইবড়ো আছে—নইলে কুলীন কায়েথের ঘরের বিশ বছরের ও রকম ছেলে কি আর অবিবাহিত থাকে গিন্নীরও ছেলেটিকে বেশ পছন্দ হয়ে গেল; মেয়েও অরক্ষণীয়া হয়ে উঠেছিল। আমি বললাম, বেশ ত, ও যখন নিম্পমালার জীবন দান করেছে তখন নিম্মলা ওরই প্রাপ্য। হলেই বা গরীব-চিরদিন কি কারও সমান বায় ? আমার মেয়ের ভাগ্যে ধন থাকে, জামাই ধনী হবে; যদি না থাকে, আমি মঙ্গত জমিদারের ছেলে 'এনে বিয়ে দিলেও, সে ছেলে বাপের বিষয় পেয়ে দহদিনে বরবাদ করে গরীব হয়ে যেতে পারে।” মখোপাধ্যায় বলিলেন, “আসল কথাই তাই। অদ্যটিই মলে, ও ছাড়া আর পথ নেই. যতই যিনি হাঁকুপাকু করন না কেন।” রাখাল মিত্র বলিলেন কোন আপিসে চাকরী হয়েছে, তা বাবাজী লেখেন নি । কোনও গভমেন্ট আপিসে বোধ হয়।’ দত্ত মহাশয় বলিলেন, তা কি ক’বে হবে ? পয়ত্রিশ বছর বয়সে কি কেউ গভমেন্টের চাকরী পায় ? কোনও মাচ্চে চট আপিসে-টাপিসে হয়ে থাকবে বোধ হয়। ষা হোক, বাবাজী এলেই জানতে পারা যাবে। মল্লখয্যে ভায়া, ভাল দিন একটা স্থির করে দাও না, পজিখানা নিয়ে আসি।” বলিয়া দত্ত মহাশয় উঠিয়া অন্তঃপরে প্রবেশ করিলেন। গহিণী কন্যার প্রমুখাৎ সংবাদটা পাবেই জানিতে পারিযাছেন। কত্তা বলিলেন, “তা হলে একটা দিন ঠিক করে থাঠাই, কি বল ?” মেয়েকে লইয়া যায় না বলিষা গহিণী জামাতাকে কত গঞ্জনা দিয়াছেন সত্য, কিন্তু এখন কন্যর অসমবিরহে তাঁহার মাতৃদেয় কাতর হইয়া উঠিল। বলিলেন, “এই প্রজো আসছে--দুটো মাস পরে পাঠালে হত না ?” কত্তা বলিলেন, “এখন যাক না, কিছুদিন পরে তখন মেয়ে নিয়ে এলেই হবে। আমার কলঙ্কভঞ্জনটা হয়ে যাক ৷” “আচ্ছা, যা ভাল বোঝ, তাই কর —বলিয়া গৃহিণী পঞ্জিকা বাহির করিয়া দিলেন। মখোপাধ্যায় মহাশয় ২১শে শ্রাবণ শুভদিন বলিয়া ধায্য করিলেন। দত্ত মহাশয বিকালে তদনুসারে জামাতাকে পত্র লিখিয়া দিলেন। দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ আজও আকাশ মেঘাচ্ছন্ন-প্রায় সারাদিনই গড়ি গড়ি বটি পড়িতেছে। বৈঠকখানায় তত্ত্বপোষের বিছানায় মাধব দত্ত মহাশয় বৈকালিক নিদ্রা উপভোগ করিতেছিলেন, এমন সময় দেওয়ালের ঘড়িতে ঠং ঠং করিয়া চারিটা বাজিল। সেই শব্দে দত্ত মহাশয়ের নিদ্রাভঙ্গ হইল। - চক্ষ খালিয়া, জানালা দিয়া চাহিয়া, আকাশের অবস্থা দেখিয়া, আরও খানিক ঘামাইবার লোভে তিনি পাশ ফিরিয়া শুইলেন। কিন্তু হঠাৎ মনে পড়িয়া গেল, আজ মধ্যম জামাতা বাবাজীউ সন্ধ্যার ট্রেণে আসিয়া পেপছিযেন, সতরাং রাত্রি-ভোজনের अन; ७क्लंद विप्लश आरज्ञाछन कब्रा उत्रावशाक । नाउब्रार ठिान छेठिग्ना दजिन्ना, शई छूलिग्ना, তিনটি তুড়ি দিয়া হাকিলেন, “রামা, তামাক দে।” রামা ভূত্য উঠানে বসিয়া ব’টী পাতিয়া স্বস-ঘস শব্দে গেরির জন্য খড় কাটিতেइल, प्लेखच्न निज, “आरस्त्र, बाई कखा।”