পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/১৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নতন বউ 4 డి o এই সময় দত্ত মহাশয়ের চারি বৎসর বয়স্ক দৌহিত্রী কমলা (নিম্পমালার কন্যা) নাচিতে নাচিতে সেই কক্ষে প্রবেশ করিয়া বলিল, “ও দাদ. এখনও ঘমেছে ? কখন উঠবে তুমি. বেলা যে গেল !" -- দত্ত মহাশয় দৌহিত্রীকে নিকটে ডাকিয়া, তাহার চিবকে হাত দিয়া বলিলেন, “হ্যাঁ বে শালী ! আমি ঘামচ্ছি কি উঠেছি, তা কি তুই দেখতে পাচ্ছিসনে ?” কমলা বলিল, “তাতো দেখতে পাচ্ছি। কিন্তু দিদিমা যে বললে, বৈঠকখানায় গিয়ে তোর দাদকে বলগে, ও দাদ এখনও ঘমোচ্চ, কখন উঠবে তুমি ?—তবে দিদিমাকে বলি গে যাই, তুমি উঠেছ ?” Q "আচ্ছা. বলবি এখন। বেশ না একট, । আজ কে আসবে জলিস ?” “छानि । वावा ।" “বাবা আসা অবধি তুই জেগে থাকতে পারবি ?" বালিকা আগ্রহভরে উত্তর করিল থাকতেই হবে । বাবা যে আম ব জন্যে পর্তুল নিয়ে আসবে মাকে লিখেছে, আমি পর্তুল দেখবো না - বামা হ:কা হাতে জৰলন্ত কলিকায ফু দিতে দিতে প্রবেশ করিল। দত্ত মহাশয় হ:কা লইযা বলিলেন, “ওরে রামা. তুই একবার চট করে গঙ্গার ঘাটে যা দেখি। আজ সারা দিন ইলশেগুড়ি ব্যটি হচ্ছে, আজ খুব ইলিশ মাছ উঠবে। জেলেরা এতক্ষণ মাছের নৌকো ঘাটে লাগাচ্ছে। কেল্টা, কি মতিলাল. কি বামধন—যে জেলের কাছে ভাল ইলিশ মাছ দেখবি, একটা নিমে আসবি । বেশ বড় দেখে একট, আর বেশ চ্যাটালো রকম—লশবা সর্বঙ্গে মাছ আনিসনে যেন, সেগুলো তেমন সোয়াদি হয় না। জেলেকে বলিস যে, আজ কত্তার জামাই আসছেন, বেশ ভাল মাছ যেন দেয । কাল সকালে এসে দাম নিয়ে যাবে। আর হ্যাঁ--বাজারে হবিশ মযরার দোকান অমনি বলে যাস যে, এক BBB BB BBB BBS BSB BB BBB BB BB BBB BBS BBBB BBB এক হাতে ইলিশ মাছ, এক হাতে সন্দেশ নিযে আসবি। বেশ করে ওজন দেখে নিবি, বঝেলি ?” “আজ্ঞে হ্যা"—বলিয়া রামা প্রস্থান কবিল। ইতিমধ্যে হারাণ মুখ-য্যে প্রবেশ করিয়া, ব্রাহ্মণের হ:কাটি সংগ্রহ করিয়া, তক্তপোষের উপর বসিয়া ছিলেন, বলিলেন, “আজ যে রকম ইলশেগুড়ি বষাচ্ছে—মাছ আজি ভালই পাবে লোধ হয়। তা, জামাই কখন এসে পৌছবেন ?” “সন্ধ্যে ৭টার গাড়ীতে। কলকাতায় থাকেন, রেলেব ইলিশের মুখে-ন্যাজে দড়ি বোধে ধনকোকার করে জেলে বেটারা যা বেচে, তাই গঙ্গার ইলিশ বলে খান ত! আসল গঙ্গার ইলিশ যে কি বস্তু তা আজ বাবাজীকে দেখিয়ে দিই। মুখোপাধ্যায কমলাকে আদর করিসা বলিলেন, ‘হ্যাঁ দিদি, তুই নাকি আমাদের ছেড়ে চললি ? তোর দাদকে দিদিমাকে ছেডে চলে ষাবি, তোব মন কেমন কববে ন ? সেখানে গিয়ে থাকতে পারবি ? বালিকা গব্বভরে বলিল, ”খাব পারবো ? ' দত্ত মহাশয় হাসিয়া বলিলেন, “শনলে হে মলখনয্যে ! হাঁ রে নেমখারাম, এত দিন যে আমরা তোকে বকে ক’রে মানুষ করলাম, আমাদের ছেড়ে চলে যেতে তোর মনে একটা কষ্টও হবে না ?” বালিকা বুঝিল, কথাটা ভুলক্রমে সে বেফাঁস বলিয়া ফেলিয়াছে। বড় লন্জা হইল। হবে না ? 'খবে হবে। কিন্তু বেশী দিন ত সেখানে থাকবো না দাদ, আবার শীগগির চলে আসবো। আর তোমার জন্যে একটা খুব ভাল পর্তুল কিনে আনবো। কলকাতায় ○/sミ