পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/২২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


कानाझेद्भन्न कौखि* ఫిషిd; “आरङ cन कथा वालनि। प्राझेटन नाब ऊ, एनई छैोकान्न शाय vब्रट्वा । आधाग्न कि করতে হবে ব্যবমশাই ?” “এই বেযারার যা কাজ-বাড়ীর সব আসবাবপত্র বাড়পোঁচ করা, ঘরে ঘরে বিছানা ঠিক করা, রপোর বাসন-টাসনগুলো মাজা ঘষা, মিস বাবাকে কলেজে দিয়ে আসা নিয়ে আসা, বিকেলে ছোট ছেলেমেয়েদের পাকে নিযে গিয়ে একটা বেড়িয়ে আনা—এই রকম সব কাজ আর কি “ - “মাইনে কত পাব হজের ?” “दूक्लि छेका। ७] श्राक्लाज्ञ दाँथा ८ब्रछे ।" কানাই মহত্তকাল কি ভাবিল। তার পর বলিল, “আচ্ছা ষে আজ্ঞে হজের, কবে থেকে আসবো তা হলে ?” O বাবু বলিলেন, ‘কাল ইংরেজি মাসের পযলা তারিখ। কাল থেকে কাজে লাগো। ঠিক সাড়ে ছাঁটায় আসতে হবে বোজ। সাতটায় আমি উঠি, আমার তামাক-টামাক দিতে হবে। রাত্রে ডিনার হযে গেলে তার পর তোমার ছয়টি। মাঝে অবশ্য দাপরেবেলা দল তিন ঘণ্টার জন্যে তোমায় খেতে ছটি দেওয়া যাবে। কাজ খাব হালকা—তবে সৰ্ব্বদা হাজিব থাকা চাই। কাল সকালে এসে, খানসামাকে বলবে, তোমার উদ্দি দেবে। পাগড়ী চাপকান আব ধতি। এ সব ছেড়ে রেখে সেই উদি পরে কাজ করবে।”—এই বলিয়া তিনি টেবিলের উপর রক্ষিত বিদ্যুৎ ঘণ্টার বোতাম টিপিলেন। খানসামা আসিয়া দাঁড়াইল। এই নবনিযুক্ত বেয়ারা সম্পবন্ধে নিজ আদেশ জ্ঞাপন করিয়া কানাইকে বলিলেন, “আচ্ছা, এখন তুমি যেতে পার।" কানাই আবার ঝ:কিষা প্রণাম কবিয সে কক্ষ হইতে বাহির হইল। গাড়ীবারান্দা হইতে নামিয়া, চারিদিকে চাহিতে চাহিতে ধীরপদে অগ্রসর হইয়া, বাড়ীর পিছন দিকে গেল। অদরে বাবচ্চিখানা, সেখান হইতে মাংস রান্নার গন্ধ অসিতেছে। সেই গন্ধে ক্ষুধাতুর যুবকের চিত্ত উদভ্ৰান্ত হইযা উঠিল। বাটীর পশ্চাতের বারান্দায় খানসামা বসিয়া একরাশ কাচের গেলাস ঝাড়ন সহযোগে পরিস্কার কবিতেছিল। কানাই সেখানে গিযা বলিল “খানসামাক্তনী তুমকো নাম কেযা ? খানসামা হাসিযা বলিল, নাম কেয়া ? তুমি আমাকে খোট্টা তজবিজ করলে নাকি ? আমার নাম গোলাম বস.ল আমি বাঙ্গালী মুসলমান, হুগলি জেলায় চেড়াগাঁয়ে আমার ঘর। তোমার নাম কি ? ধব কোথায় 2" কানাই নিজ নাম ও নিবাস বলিয়া জিজ্ঞাসা করিল এখানে বাবােব কে কে থাকেন ?” খানসামা উত্তব করিল “বাব । বাব কে ? সাহেবের কথা পাছ করছ? বাব বোলো না, সাহেব গোসসা হবে।" “বটে, তাই নাকি ? তা আমি ত জানতাম না খানসামাজী ধতি পরে তামাক খাচ্চেন দেখে আমি ত বাব বলে ফেলেছি।” “উনি কি তোমাদের হেদ ম ইশাই যে ! সাহেব বলবে। সাহেবের মেম নেই, এতেকাল করেছে। এ কুঠিতে সাহেবের দই বেটী, এক বেটা থাকে। ছোট সাহেবের এখনও সাদি হয়নি। ছোট মিস বাবারও সাদি হয়নি। বড় দামাদ সরকারী কাজে বিলাযেৎ মলকে গিয়েছে তাই বড় বেটী এখন বাপের কাছে থাকে। তার দই লেড়কা তিন লেড়কী । ব্যস।" বলিযা খানসামা সজোরে কাচের গলাসে ঝাড়ন ঘষিতে লাগিল । বলিল যাও দেখি, এই টেবের উপর সাফ গেলাসগুলো রযেছে, এগুলো ঐ খানাকামরায় tরখে এস। দেখো, ফেলে দিয়ে ভেঙ্গো না যেন।” কানাই সাবধানে ষ্ট্ৰে তুলিয়া লইষা খানাকামরায় প্রবেশ করিল। দেখিল, টেবিলের উপব দইটি চীনামাটীব পাত্রে অনেকগুলি আপেল ও ন্যাসপাতি সাজানো রহিযাছে।