পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/২৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরের চিঠি ૨૨૯ সরেনরাব বলিলেন, “আমি যে তিন মাসের ছটি নিয়েছি।” "তিন মাসের! তুমি কি মনে করেছিলে আমার এদিক ওদিক যা হোক একটা কিছ: হতে তিন মাস লেগে বাবে ?” "এদিক—আবার ওদিক কেন ?”—বলিয়া সরেনবাব শাসিত বরপে পত্নীর গাল টিপিয়া দিলেন। তার পর ৰলিলেন, "রঙ্গপরে থাকবার আর ইচ্ছে নেই। . যে ম্যালেরিয়া ! তিন মাস ছটি নিলে অন্য জায়গায় বদলি করে দেয় কিনা, তাই তিন মাসের ছয়টিই নিয়েছি। তুমি একটা সেরে উঠলেই আমি তোমায় দাজিলিঙে নিয়ে যাব হাওয়া বদলাতে। এপ্রিল মাসে লাট সাহেবের দপ্তরও দাজিলিঙ যাবে। সেক্রেটারির সঙ্গে দেখা করে আলিপুরে বদলি হবার চেণ্টা করবো।” মণিকা ক্লান্তভাবে বলিল, “কেন, তোমার মনোরমা আলিপুরে থাকে নাকি ?” সরেনবাব আশচষ্য হইয়া বলিলেন, “আমার মনোরমা ? আমার মনোরমা আবার কে ? কি বলছো তুমি ?” মণিকা স্বামীর পানে না চাহিয়া ক্লান্তস্বরে বলিল, “মনোরমা—তোমার ভালবাসা গো! আজকাল সে আর তোমায় চিঠি লেখে না ? চিঠি এখন আপিসের ঠিকানায় আনাও বুঝি ? ওহো, তুমি কৌমাষ ব্ৰত ভঙ্গ করেছ কিনা, সেই রাগে মনোরমা আর বোধ হয় চিঠি লেখে না তোমায়, না ?” সরেনবাব বলিলেন, “এ সব কি তুমি ভুল বকছো বল দেখি ? মনোরমা বলে কোনও জন্মে আমার কোনও ভালবাসাও ছিল না, কেউ আমায় চিঠিও লেখে না।” মণিকা বলিল, “বিয়ের পর থেকে তোমায় কতবার আমি জিজ্ঞাসা করেছি, হ্যাঁ গা, আমি ছাড়া তুমি কোনও দিন আর কাউকে কি ভালবেসেছিলে ? তুমি বরাবর উত্তর করেছ—ম্বনেও না। আমি আগে মনে করতাম তুমি সত্যবাদী। এখন দেখছি সেটা আমার ভুল। আমি তোমার চিঠি দেখেছি। নিজে পড়েছি।” “আমার চিঠি ? কাকে চিঠি লিখেছি আমি ? ' কোথা সে চিঠি ?” “তুমি লেখনি। তোমার মনোরমা তোমায় লিখেছিল। তোমার সটেকেসের ভিতরে ছিল। যত্ন করে রেশমী রামালে তুমি বেধে রেখেছিলে মনে নেই? এক গাদী চিঠি। ভয় নেই, বেশী পড়িনি আমি, তিন চারখানা মাত্র পড়েছি। আর পড়তে ভাল লাগলো না ।” সরেনবাব বলিলেন, “আমার সটেকেসের ভিতর কার কোনও চিঠি ত কোনও দিন ছিল না। কই সে চিঠি ?” “যে সন্টকেস তুমি টরে নিয়ে যাও, সে সটেকেস নয়। যে সন্টকেসটা তুমি লুকিয়ে রেখেছিলে ও-ঘরে! তুমি যেদিন টরে যাও, তার পরদিন সকালে তোমার এণ্ডির কোট খজতে গিয়ে আমি সেই সটেকেস খালে সেই সব চিঠি দেখতে পাই।” সরেনবাব আর বাকব্যয় মাত্র না করিয়া, তাড়াতাড়ি গিয়া সেই স্টকেস হাতে করিয়া লইয়া আসিয়া জিজ্ঞাসা করিলেন, “এই সন্টকেসের মধ্যে চিঠি ছিল ?” “शाँ।” - “কিন্তু এ সটেকেস ত আমার নয় ।” “ঐ যে ডালায় তোমার নামের অক্ষর ছাপা রয়েছে—S. D. ” সটকেস মেকের উপর নামাইয়া রাখিয়া, সরেনবাব সন্ত্রীর পানে চাহিয়া হা হা হা করিয়া হাসিতে লাগিলেন। জীব এবং উচ্চ হাসি। তাঁহার ভাব-ভঙ্গি দেখিয়া মণিকা একটা বিব্রত হইল। বলিল, “ও সটেকেস তোমার নয় ত কার তবে শুনি " কন্টে হাসির বেগ সম্বরণ করিয়া সরেনবাব বলিলেন, "আচ্ছা আমি কি তোমায় বলিনি যে আমার একজন বন্ধ আছে তার নাম শরৎ দত্ত ?” tyసిé