পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/২৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


मिथानंॉर्ण* ఇరిక শরৎ বলিল, “কি হে সরেন, তুমি কি বল ? অনিবাৰ্য্য নাকি ?” . সরেন হাসিয়া বলিল, “জন্ম, মৃত্যু, বিবাহ এ তিনটের কোনটাই ত মানুষের হাতে নয় ভাই। প্রজাপতির তাই যদি নিবন্ধ হয়, তবে আমায় পরতেই হবে মাথায় টোপর, পালাবো কোথা ?” & ললিত বলিল, “কি ভয়ানক কথা! আমাদের মধ্যে যে এমন একজন দিব্যদৃষ্টিওয়ালা মহাপরিষে বিচরণ করছেন, তা আমরা কোন দিনই সন্দেহ করিনি! আচ্ছা অতুলবাব মেয়েটির বয়স কত হবে ?” - অতুল বলিল, “সতেরো—সতেরো বছরে পড়েছে, এখনও পণ হয়নি।” “আচ্ছা, তার চেহারাটা কি রকম, দিব্যদৃষ্টিতে দেখতে পাচ্ছ ত ?” “আলবৎ পাচ্ছি।” - “কি রকম, বল না শনি। কৃষ্ণা, না শ্যামা, না গৌরী ?" “গৌরী। নাম শনেই বুঝতে পারছ না ? কুন্দফলের রঙ কি ?” উমাপদ বলিয়া উঠিল, “কুন্দশদ্রে নগ্নকান্তি সরেলগ্নবন্দিতা, অয়ি অনিন্দিতা।” যতীন চীৎকার করিয়া বলিল, "ওহে অতুল, এই দেখ আর একটা ভয়ঙ্কর মিল। সরেন ভাই, সুরেন,-তোমার ভাবী প্রিয়ার একটা বন্দনা-গান গাও।” কুঞ্জ গাহিয়া উঠিল— “পদপ্রান্তে রাখ সেবকে ৷” খুব একটা হাসি পড়িয়া গেল। হাসির হিল্লোল থামিলে যতীন বলিল, “যাই বল তাই বল ভাই, এতগুলো মিল কিন্তু আশ্চয্য বটে।” অতুল যতীনের পানে চাহিয়া, হাসিতে হাসিতে ভেঙ্গাইল—“দেয়ার আর মোর থিংস ইন হেভেন অ্যাণ্ড আর্থ, হোরেশিও, দ্যান আর ড্রেমট আফ ইন ইওর ফিলাজাফি !” ললিত বলিল, “সে যাক-তুমি বলে যাও হে। মেয়েটির বয়স মাত্র সতের বছর, গৌরবণা,—আর কি কি সব বল দেখি ?” o “সংক্ষেপেই বলি। মাখ, চোখ, চলে, অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সবই ভাল, তবে একট ক্রটি আছে। চোখের তারা দুটি মিশ কালো নয়, একটা ফিকে বাদামী রঙের। এই ক্ৰটিটকু ছাড়া, মেয়েটিকে সব্বাঙ্গসুন্দরী বলা যেতে পারে।” সরেন বলিল, “ওটা কি কটি নাকি ? আমি.ত ওটা সৌন্দয্যের লক্ষণ বলেই মনে করি।” এই সময় খবর আসিল, আহায্য প্রস্তুত। যবেকগণ আনন্দকলরব করিতে করিতে নীচে নামিয়া গেল। দই পরদিন বিকালে ৫টার সময় যতীনবাব কলতলায় স্নান করিতেছিলেন, দুইটি অপরিচিত ভদ্রলোক বাসায় প্রবেশ করিলেন। একজন প্রবীণ-বয়স্ক, অন্য জন যবোপরষ। প্রবীণ ভদ্রলোক যতীনবাবকে দেখিয়া বলিলেন, “এ বাসায় সরেন্দ্ৰবাব বলে কেউ থাকেন কি ? সুরেন্দ্রনাথ চ্যাটাজী*।" যতীন প্রশ্নের উত্তর না দিয়া জিজ্ঞাসা করিল, “আপনারা কোথা থেকে আসছেন ?” “কৃষ্ণনগর থেকে।" - শনিবামাত্র যতীনের দেহ রোমাচিত হইয়া উঠিল। উত্তর করিল, “সরেনবাব ত এখন বাসায় নেই, বেরিয়েছেন।” “कथन शिन्झटदन छिनि ?”