পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৩৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

eరిఆ • গল্প-গ্রন্থাবলী । لهایی সাহায্যাথ পাঠাইন্সছিলেন। সে আমাকে একটি মোহর দিয়াছে। তাই আজ অনেকদিনের পর তোর জন্য একটি রেশমী কন্ন কিনিয়া আনিয়াছি। মাংস, স্বত, মশলা, চাউল প্রভৃতিও কিনিয়া আনিয়াছি। পাক কর, অনেকদিনের পর অঁাজ সবোদ খাদ্য আমাদের মুখে উঠিবে; এই নে।” - - ইহা শনিয়া বন্ধের কন্যা প্রফুল্লমখে বাহিরে আসিল। রাজপত্রে তাহাকে দেখিবামাত্রই ববিলেন এ আর কেহ নয়, যাহার সন্ধানে আজ সাত বৎসর কাল দেশে দেশে, বনে জঙ্গলে বেড়াইতেছিলেন, তসবীর অঙ্কিত এই সেই যাবতী। দেখিয়া রাজপত্র নতজান হইয়া ঈশ্বরকে বহর ধন্যবাদ দিলেন। মবোরকও বলিল—“হাঁ, এই সেই মনুষ্যকন্যা বটে।” তাহার অভিনব যৌবন, আশ্চর্য রপে যেন সেই স্থানকে আলোকিত করিয়া রাখিয়ছে। রাজপত্র মনে মনে ভাবিলেন, আমি সাত বৎসর ধরিয়া সমস্ত পৃথিবী পৰ্য্যটন করিলাম, কিন্তু এমন সৌন্দৰ্য্য কখনও চক্ষগোচর করি নাই। রাজপত্র তখন উচ্চৈঃস্বরে বলিলেন—“হে ফকীর দুইজন পথিককে একটা বিশ্রামের স্থান দিবেন কি ?" ফকীর তাঁহার প্রতি দটিপাত করিয়াই চিনিতে পারিলেন এবং মহা সমাদরে আহবান করিয়া গহমধ্যে লইয়া গেলেন। বসাইয়া রাজপত্রকে জিজ্ঞাসা করিলেন—“তোমার মত দয়াবান লোকের আগমনে আজ আমার কুটীর পবিত্র হইল। বৎস! তুমি কে এবং কি জনাই বা দেশভ্রমণ করিয়া বেড়াইতেছ?” m রাজপত্র কহিলেন—“আমি পারস্যদেশের যবেরাজ। ঘটনাক্রমে একখানি ছবি আমার হস্তগত হয়। সেই ছবিখানিতে একটি অপব্ব সন্দেরী যাবতীর মাত্তি অঙ্কিত ছিল । সেই যাবতীর দশন লালসায় আমি সাত বৎসরকাল দেশে দেশে ভ্রমণ করিয়াছি। এতদিন পরে সেই যাবতীর সাক্ষাৎ পাইয়াছি। তিনি আর কেহই নহেন, আপনারই কন্যা।” এই কথা শ্রবণ করিয়া বন্ধ দণ্ডায়মান হইয়া রাজপত্রের সম্মবন্ধনা করিলেন। বলিলেন —“না জানিয়া অপরাধ করিয়াছি। আপনার পদগৌরব অবগত ছিলাম না। অতএব ক্ষমা করিবেন।" অতঃপর বসিয়া, একটি দীঘনিঃশ্বাস ফেলিয়া, বন্ধ বলিলেন—“হায়, আমি কি হতভাগ্য ! আপনার মত এমন সপোত্রের হতে যদি আমি কন্যা সমপণ করিতে পারিতাম, তাহা হইলে ধন্য হইতাম। কিন্তু তাহার উপায় নাই। আমার কন্যা বড়ই বিপন্না। কাহারও সাধ্য নাই যে উহাকে বিবাহ করে।” . ইহা শনিয়া রাজপত্র বলিলেন—“কেন ফকীরসাহেব, এ কন্যা বিপন্না বলিতেছেন কেন ? কেহ ইহাকে বিবাহ করিতেই বা পারবে না কেন ?” কন্যাটি এই সময় খাদ্য পাক করিবার জন্য রন্ধনশালায় গেল। বন্ধ বলিতে লাগিলেন-- “আমার ইতিহাস শুনিবেন ? সে অনেক কথা। আমি পাবে এই সহরের একজন বিশিষ্ট রহীস ও ধনী ব্যক্তি ছিলাম। এই যে সকল ভগ্নস্তাপ দেখিতেছেন, এইখানেই এক সময়ে আমার প্রাসাদ শোভা পাইত। আমরা বহুপরিষে ধরিয়া এইখানে বসবাস করিয়াছি। ঈশ্বর আমাকে কেবল মাত্র এই কন্যা সন্তানটি দিয়াছিলেন। কন্যা বড় হইলে, ইহার সৌন্দৰ্য্য, স্কুমারত, বৃদ্ধিমত্তা প্রভৃতি গুণাবলী এতই প্রসিন্ধিলাভ করিল যে, দেশ বিদেশের বড় বড় লোকগণ ইহাকে বিবাহ করিবার জন্য আমার নিকট প্রস্তাব করিতে লাগিল। একমাত্র কন্যা, বিবাহ দিলেই পরের ঘরে চলিয়া যাইবে, এই কারণে আমি স্নেহধিক্যবশতঃ বিলম্ব করিতে লাগিলাম। ইতিমধ্যে এই নগরের রাজপত্র একদিন ইহাকে দৈবাৎ দেখিয়া, আত্মহারা হইয়া পড়িল। সে প্রণয়বিহবল হইয়া অহার নিদ্রা পরিত্যাগ করিল, বাতুলের মত হইল, ক্রমে তাহরে অবস্থা শঙ্কটাপন্ন হইয়া উঠিল। बानभाइ अझै कथा छानिटङ चाब्रिम्रा अर्कामन ब्राञ्जबार्हौट्ठ आधाहरू निमन्थ्रण कब्रम्ला ब्नऐक्ल