পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৩৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ՓցՑ গল্প-গ্রন্থাবলী বন্ধ তখন ভয়ে কাঁপতে কাঁপতে সমস্ত বজাত বলিল। মনসার শনিয়া বথকে সঙ্গে করিয়া হাসান রুটিওয়ালার দোকানে যাইল। অনেক পীড়াপীড়ি করাতে হাসান স্বীকার করিল, সে তাহা নাপিতের দোকানে রাখিয়া আসিয়াছে। মনসারি, হাসান ও বাবাদল তিনজনে তখন নাপিতের দোকানে গেল। নাপিত প্রথমে ভয়ে কিছুই স্বীকার করিল না। অবশেষে সে সকল কথা বলিল। চারিজনে তখন কাবাবচি ইয়ানাকির দোকানে উপস্থিত হইল। যে সময় সিপাহীরা সকল বিধম্মীগণকে প্রহার করিতেছিল, সেই সময়েই ইয়ানাকি প্রাণভয়ে নগর ছাড়িয়া পলায়ন করিয়াছিল। সুতরাং ইয়ানাকির দেখা পাওয়া গেল না। এই সময় মনসরি রাস্তার কিছর দরে গোল শনিয়া সেই দিকে গেল। গিরা দেখিল আগা সাহেবের কাটা মণ্ড সেইখানেই পড়িয়া রহিয়াছে। তখন মনসার আর কাল বিলব না করিয়া বাদশাহের নিকট গিয়া সকল কথা বলিল । বাদশাহ দেখিলেন, সৈন্যগণ ক্ষেপিসা বাজ্যে বিদ্রোহ উপস্থিত করে। তখন তিনি হুকুম দিলেন আগা সাহেবের মণ্ড অনিয়া মহা সমারোহে তাহার কবর দাও । আগা সাহেবের সিপাহীগণকে পাঁচ পাঁচ মোহর বখশিস কর। মহা সমারোহে আগা সাহেবের মণ্ড সমাধিস্থ হইল। সিপাহীদের মনোমত এক ব্যক্তিকে বাদশাহ আগার পদে নিযুক্ত করিলেন। অতঃপর রাজ্যে আবার শান্তি বিরাজ করিতে লাগিল। বাদশাহের হুকুম অনুসারে ননসরি গিয়া বাবাদল দরজিকে দই শত সত্বৰ মাদ্রা দিয়া আসিল। বড়া দরজির আব কোনও কষ্ট রহিল না । গলে বেগমের আশ্চয্য গলপ প্রথম পরিচ্ছেদ পবেকালে খাদির দেশে এক প্রবল প্রতাপাবিত বাদশাহ ছিলেন। তাঁহার নাম শামশাদলালপোষ। তাঁহার তুল্য জ্ঞানী, ধনী ও প্রজাপালক বাদশাহ তৎকালে প্রায়ই দেখা যাইত না। তাঁহার সৈন্যবলও অপবিমিত ছিল। এই প্রতাপশালী নরপতির সাত পত্র ছিল। তাঁহারা সকলেই যবো বয়স প্রাপ্ত হইবাছিলেন। নানা শাস্ত্রে পারদশী এবং যন্ধবিদ্যায সুনিপুণ ছিলেন। একদিন জ্যেষ্ঠপত্র তহমাশ পিতার সমীপে আসিয়া সেলাম করিয়া কাঁহলেন্স– “পিতা, ইচ্ছা করিয়াছি কিছুদিনের জন্য দেশ ভ্রমণ ও মগয়া করিতে বাহির হইব। সম্প্রতি আমার চিত্ত নানা কারণে বিষাদগ্রস্ত। পৰ্য্যটনে চিত্তের প্রসন্নতা লাভ হইবে। এখন আপনার আজ্ঞা পাইলেই হয়।" বাদশাহ পত্রের এই প্রাথনা শ্রবণ করিয়া কহিলেন—“বৎস, ইহা উত্তম প্রস্তাব করিয়াছ। ইহাতে আমার সম্পণে সম্মতি আছে। দেশ ভ্রমণে নানা জ্ঞান লাভ হয়, বহুদৰ্শিতা উপস্থিত হয় এবং চিত্তব্যক্তিও সম্যক সফতি প্রাপ্ত হইয়া থাকে।” বাদশাজাদা আনন্দিত হইয়া তৎক্ষণাৎ দেশ ভ্রমণের সমস্ত আয়োজন করিতে ভৃত্যগণকে আজ্ঞা দিলেন। নিজ বয়স্যগণকে আহবান করিয়া তাহাদিগকেও সঙ্গে বাইতে

  • ইংরাজি হইতে গহীত।