পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৪২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ከ ፬ ከ * } এই অসভ্যগণের একজনের একটি বালক পত্র আবদলের বড়ই প্রিয় হইয়া উঠিয়াছিল। আবদলে যখন কাজ করিত, তখন সে প্রায়ই তাহার কাছে কাছে থাকিয়া খেলা করিত;—কাব্য শেষ হইলে, আবদলে তাহাকে কোলে বা কাঁধে তুলিয়া বেড়াইতে ঘাইত। সেই বীপে নানা জাতীয় শরগাছ ছিল—কোনটার ছাল শাদা ধবধবে, কোনটার পীতবর্ণ, কোনটার বা টকটকে লাল। আবদলে একদিন অবসর সময়ে বসিয়া, নানা বর্ণের শরকাঠি হইতে ছাল ছাড়াইতে লাগিল। ছেলেটি জিজ্ঞাসা করিল, “এ সব কি হইবে আবদলে ?’ আবদলে বলিল, “তোর জন্য একটা মজার জিনিস তৈরী করিয়া দিব।” পরদিন কাৰ্য্যশেষে আবদল বসিয়া সেই শরের ছালগুলি দিয়া, বালকের জন্য একটি টুপী বানিয়া দিল। সেই টপী মাথায় দিয়া বালক ত আনন্দেই আটখানা !—সে নাচিতে নাচিতে গিয়া তাহার জনক জননীকে উহা দেখাইল । সেই সন্দের টপী দেখিয়া, অসভ্যগণের মনে সেইরাপ টপী পরিবার জন্য অত্যন্ত লোভ জন্মিল। তাহারা আবদলকে কাঠ কাটা, মাটী খোঁড়া প্রভৃতি কাৰ্য্য হইতে অবসব দিয়া বলিল, “তুমি কেবল সারাদিন বিভিন্ন মাপের এইরুপ টপী প্রস্তুত কর—আমাদের সকলের জন্যই এইরুপ টপী চাহ । অবশ্য সন্দার মহাশয় ও তাঁহার পত্রে পরিবারগণেব টপৌগলিই প্রথমে প্রস্তুত করিতে হইবে।” ইহার পর হইতে আবদল কেবল টুপীই বানিতে লাগিল। তাহার কাজের সৌন্দৰ্য্য দেখিয়া, অসভ্যগণ অত্যন্ত প্রীত হইল। বাসের জন্য তাহাকে ভাল ঘর দিল, এবং খাদ্যদুবাদিও ভাল ভাল দিতে লাগিল । নবাব বাহাদর সেই কাঠ কাটা এবং মাটী খোঁড়াব কায্যেই নিযুক্ত আছেন। তাঁহার দেহে এখন বিলক্ষণ বলসঞ্চয় হইধাছে- দেহ নীরোগ-ভাগ্যবিপৰ্য্যয় সত্ত্বেও, মন এখন বেশ প্রফুল্ল থাকে। আবদলের প্রতি এখন আর তাঁহর মনে কিছমাত্র ঈষা বা বিদ্বেষ ন9--তাহার সহিত বন্ধভাবেই মিশিযা থাকেন। আবদলেও তাঁহাকে যথাসাধ্য সাহায্য কবে, এবং নিজের ভাল খাবারগুলির ভাগ দেয়। বৎসর অতীত হইল। পারস্য রাজ্যের জাহাজ আবাব এই দ্বীপে আসিয়া লাগিল । কাপ্তেন নামিয়া আসিয়া, নবাবকে এবং আবদলকে জাহাজে তুলিষা লইযা গেলেন। । পাঁচ n যথাসময়ে জাহাজ গিয়া পারস্য দেশে পেপছিল। রাজাদেশে, আবদল ও নবাব উভযকেই সেই কাজি সাহেবের নিকট উপস্থিত করা হইল। তখনও উভয়েরই বন্দী-বেশ । কাজি সাহেব নবাব বাহাদরকে সম্বোধন করিয়া বলিলেন, “অলস ও অকমণ্য ধনী ব্যক্তির সহিত, দরিদ্র ও শ্রমশীল লোকের পাথক্য কি, তাহা আপনি হৃদয়ঙ্গম করিয়াছেন কি ?” to নবাব বলিলেন, “করিয়াছি, মহাশয় ।” “এখন আপনার ক্ষুধা কিরাপ হয় ?” “বিলক্ষণ হয়।” “আর ל המהן" “অতি সনিদ্রা হয়—রাত্রি কোথা দিয়া কাটিয়া যায় তাহা জানিতেও পারি না।” “ইহার কারণ কি, তাহাও বোধ হয় আপনি উপলব্ধি করিয়াছেন ?” "ইহার কারণ-মিতাহার ও শ্রমশীলতা।” কাজি সাহেব বলিলেন, "উত্তম কথা। এখন আপনি নিজগৃহে গমন করিতে পারেন।