পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


॥ न्दिछौब्र अर्कब्राझिल ॥ বোম্বাই মেলে কীলকাতা হইতে যারা করিলাম। ইন্টার ক্লাশের টিকিট ছিল। ইটাসি" प्च्प्लेजन छाफूाईब्रा ब्राह्य इऐण। बाख्रा व्यिझौ, याजेख्ाछा e भाश्नम्झाश इज, उाङ्ाई খাইয়া, বিছানা পাতিয়া শ্যইয়া পড়িলাম। আমার কামরায় তখন দইজন মাত্র আরোহী ཏཱ་ཨཱ།. ཨའི་ ཐ་ཝ། ལྷ་ཁང་༢ ཙཝ་ཤ me་དང་ཁ་ उाङ्ग अग्न आभि श:बाईझा 霄H कठक्रण निष्ठिठ झिलाय छानि ना, ७कप्लेो कब्वाथव्रकाव्रौ विद्गाछे छौषण आळक निम्नाछज्ञा হইল, এবং সঙ্গে সঙ্গে আমি বেঞ্চির উপর হইতে ছিটকাইয়া মহাবেগে কোথায় যেন পতিত হইলাম। চক্ষ খলিয়া দেখি সমস্তই অন্ধকার। একটা মড়মড় কড়কড় শব্দ এবং সেই সঙ্গে অনেক লোকের করণ আত্তনাদ কাণে আসিতে লাগিল। নিজে তখনও আমি দলিতেছি—আমার ডান দিকের উরতে এবং মাথার পশ্চাতে ভীষণ যন্ত্রণা। বুঝিলাম, ট্রেণে কলিসন হইয়াছে। দোলানি ও মড়মড় কড়কড় শব্দ শীঘ্রই থামিয়া গেল। উরতে হাত দিয়া দেখিলাম একটা কাঠের টুকরা সেখানে বিধিয়া রহিয়াছে। সেটা খলিয়া ফেলিতেই, যন্ত্রণা একট কমিল বটে, কিন্তু দর দর ধারায় রক্তপাত হইতে লাগিল তাহা পশ" বারা বুঝিতে পারিলাম। আরও বঝিলাম, এ কলিসনে আমি মরি নাই, মরিলে ক্ষতস্থান হইতে রক্ত পড়িত না; ভাঙা গাড়ীর স্তপের ভিতর জীবন্ত সমাধি লাভ করিয়াছি। বাহির হই কি করিয়া ? কই, কোনও দিকে ত একটু আলোকের কণাও দেখিতে পাইতেছি না। কিন্তু বাসকষ্টও ত অনুভব করিতেছি না—বায় প্রবেশের পথ কোথাও নিশ্চয়ই আছে। এবং সেই পথেই, নরনারীর সমবেত কণ্ঠোথিত আত্তনাদও শ্রবণপথে আসিয়া পেপছিতেছে। বাহির হইবার কোনও উপায় কি নাই ? এই অন্ধ তমোগহনরে, অনাহারে মৃত্যুই কি আমার অদন্টালখন ? তার চেয়ে, মস্তক চণ হইয়া সঙ্গে সঙ্গে পরলোক পাড়ি দিতে পারলেই ত ভাল হইত। সেই অন্ধকারে চারিদিক হাতড়াইতে লাগিলাম। একটা কোমল দ্রব্য পশ করিলাম—মনুষ্যদেহ। পশে ಗಾ ಆಫ್ ಗೆ তাহাকে ঠেলিয়া জিজ্ঞাসা করিলাম, "মরে গেছ ייק - কোনও উত্তর নাই। ও তবে মরিয়াছে। জীবিত ও মত—একত্র সমাধিস্থ। আরও চারিদিক হাতড়াইয়া দেখিলাম, আর কাহাকেও পাইলাম না। আরব্য উপন্যাসে পড়িয়াছিলাম, সিন্ধবাদ সে কোন দেশে গিয়াছিল, সেখানে স্বামী মরিলে জীবন্ত সন্ত্রীকে এবং মত্রী মরিলে জীবন্ত সবামীকে একত্র সমাধিস্থ করা হয়—আমি কি সেই দেশে রহিয়াছি এবং এই তরণীই কি আমার মতা পত্নী ? বিশেষ চেন্টায় স্মরণশক্তি প্রয়োগ করিয়া स्ठान झईल-ना, उाश नग्न, अभि अविवशिष्ठ वाव्शालौ यद्वक, dवर भाल थाब्रम कब्रिदान्न জন্য এই ট্রেণে আহমেদাবাদ যাইতেছিলাম। নিজ উরতের ক্ষত স্থানে হাত দিয়া ঘৰ্ম্মণা লাঘবের চেষ্টা করিতেছি, এমন সময় একটা গোঙানি শব্দ শুনিতে পাইলাম। জয় জগদীশ্বর –ও তবে মরে নাই—বাঁচিয়াই আছে ! তু-নদীর তটপ্রান্তে দাঁড়াইয়া, একটি জীবিত প্রাণীর সঙ্গলাভে যেন কৃতাৰ্থ হইয়া গেলাম। হাত বাড়াইয়া মেয়েটির গা ঠেলিয়া বলিলাম, “তুমি বেচে আছ?” সে রুদনের স্বরে বলল—“আগে মাই গে মাঈ!” शक्षिलाञ बाक्षाञ्जौन्न ८मरम्न नम्न, क्ष्मिी कथा कन्न एय ! জিজ্ঞাসা করিলাম,“বহুত চোট লাগা ?” সে' কেবল কাংরাইতে লাগিল।