পাতা:গল্প-গ্রন্থাবলী (প্রভাতকুমার মুখোপাধ্যায়) তৃতীয় খণ্ড.djvu/৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


भाकछाड्ने कुंअङ्ग ●● - ۰ به سمت ه - مه ۰ - متم | বাসায় পেপছিলে, সৰোগমত নরহরি জাসিয়া তাহাকে জিজ্ঞাসা করিল, “হাত দেখে बाबाजौ कि तलzलन ?” . কুসুম সংক্ষেপে উত্তর করিল, “ছেলে হবে মা বললেন "—বলিয়া লানমন্খে চলিয়া গোষ্ঠল । নরহরি সেইদিনই আহারাদিব পর একটা বিশ্রাম করিয়া, অপরাদুকালে আবার তারকেশ্বর দশনে চলিল। তথায় গ্রামস্থ বন্ধগণের আভায় পেপছিয়া দেখিল, সকলেই বাহির হইয়া গিয়াছে। মেলাস্থানে গিয়া দুই একজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ হইল। আর সকলে কোথায় জিজ্ঞাসা করায় তাহারা বলিল, “তারা হাত গোণাতে গেছে।” গণৎকার ঠাকুরের অসাধারণ ক্ষমতা সম্পবন্ধে উচ্ছৰাসপণ ভাষায় অনেক প্রশংসাবাদ করিল। বলিল, “আমরাও যাচ্ছি—যাবে তুমি ?” নরহরি ভাবিল, কুসুম ত হাত দেখাইয়া গিয়াছে, গণৎকার ঠাকুর তাহাকে বলিয়া দিয়াছেন, সন্তান হইবার কোনও অাশা নাই। যাই না, আমিও হাত দেখাই, আমাকেই बा कि वप्णन श्राना बाक। आबिद्दे प्य कूजरबन्न झ्वाञौ उाझा उ आग्न ठाङ्कन्न छाप्नन ना ! তাঁহার যথার্থ গণনাশক্তি আছে অথবা বজরাকি মাত্র, তাহা পরীক্ষা করিবার এই সংযোগ । বলিল, “বেশ চল, আমিও হাত দেখাব।” যথাস্থানে উপস্থিত হইয়া নাম-ধাম ও জন্মনক্ষত্র লিখিত কাগজে একটি টাকা জড়াইয়া চেলার জবারা ভিতরে পাঠাইয়া নরহরি অপেক্ষা করিতে লাগিল। কিয়ৎক্ষণ পরে তাহার ডাক হইল । 曾 নরহরি ভিতরে গয়া প্রণাম করিতেই বাবাজী গভীরতবরে বলিলেন, “কি তোমার মনস্কামনা, বল বাবা ?” নরহরি বলিল, “মনস্কামনা এমন বিশেষ কিছ নয়। আমার হাতটা একবার দেখন; আমার আয়ন্থোন, ধনস্থান, পরস্থান—এইগলো সব কেমন, সেইটে জানবার অভিলাষ।” “আচ্ছা, সরে এস-দাও, হাত দাও, দেখি।” নরহরি, বাবাজীর নিকট বসিয়া নিজ দক্ষিণ হস্তখানি প্রসারিত করিয়া দিয়া, বাবাজীর পরিচ্ছদটি দেখিতে লাগিল। এত টাকা রোজগার করিতেছেন, কিন্তু—ওs—কি বৈরাগ্য 1 আলখাল্লাটি ছোড়া এবং তালি দেওয়া, তাও রং মিলে নাই। অথচ ইচ্ছা করিলে ইনি রোজ একটা নতেন রেশমী আলখাল্লা কিনিয়া পরিতে পারেন। আয়ন্থোন ত তেমন সবিধে নয়, বাবা । ৫২ বছর মাত্র তোমার পরমায়, ঐ সময় তোমার অপঘাতমাতু। বিষপ্রয়োগে তোমার মৃত্যু—তা বেশ পটই বোঝা যাচ্ছে।” गर्दानग्ना नब्रशव्रि शिशब्रिग्ना छेोठेल । दर्शनम्ना छैठेण, “राट्जन कि ठाकूद्र !”, ঠাকুর বলিলেন, “আমি কি বলছি ? বলছে তোমার অদষ্টলিপি। ধনপুথান—বড় মন্দও নয় ; ৪o বৎসর বয়স হলে হঠাৎ এমন একটা উপায়ে তোমার বিপলে ধনাগম হৰে, যা তুমি কখনও স্বপ্নেও ভাবনি; তার পর যশস্থান, সেটাও ঐ ৪০ বছর বয়সের পরে। যশ জিনিষটে ধনেরই অনগামী কিনা! তার পর পাখান—কই, না, এখানে ত কিছুই ফনই, একেবারে শান্য যে ! তোমার কি কোনও ছেলেপিলে হয়েছে ?” नब्रशब्रि शङाणछाट्द दलिण, “ना ।”