পাতা:গীতরত্ন গ্রন্থঃ (১৮৭০)- রামনিধি গুপ্ত.djvu/২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।

[  ]

ভৈরবী ৷

তাল জলদ্‌ তেতালা ।

 যুগল খঞ্জন হেরি বদন কমলে। প্ৰাণ ।
ভূপতি না হয়ে প্রাণ যাইছে বিফলে ।।
সবে ধন মন ছিল, হেরিয়া তা হারাইল ।
লাভত হইল তাল গেল বিনি মূলে ।। ১ ।।

 তোমার সাধনা করি সাধ না পুরিল ।
মনের যে সাধ তাহা মনেতে রহিল ।।
তোমা বিনা কোন্‌ জন, তুষিবে আমার মন,
জানিয়া না কর তুমি বিষম হইল ।। ১ ।।

 কেন পিরীতি করিলাম মজিলাম হায় ।
পিরীতি করিয়া সখি একি হলো দায়,
কহিতে সে সব দুঃখ প্রাণ বাহিরায় ।।
মনে করি না তুলিব তাহার কথায়,
দেখিলে তাহার মুখ দুঃখে হাসি পায় ।। ১ ।।

 এই কি তোমার প্রাণ ছিল হে মনে ।
যাচিয়া যাতনা দিবে জানিব কেমনে ।।
অবলা সরলা অতি জানিয়া মনে ।
ছলেতে ভুলালে ভাল সুধা বচনে ।। ১ ।।

 নয়ন অন্তরে অন্তরে তোরে নিরখি মন নয়নে ।
চাক্ষুষে যতেক সুখ, তত কি হয় মননে ।। ১ ।।