পাতা:গীতরত্ন গ্রন্থঃ (১৮৭০)- রামনিধি গুপ্ত.djvu/৮৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বহর । তাল জলদ তেতাল । ত্যজোনা বিষম বেশ, করহ স্বভাব বেশ । ঈষদ হাসিযে প্রিয়ে, অভিমান বিনাশিয়ে, প্রাণ সরলে মজন 11 ১ 11 সোঘরাই বহার । ভাল জলদ, তেতাল।। মনিভরে ভর করিছ কেমনে । অমিয় সমান এমন বচন না যায় সহনে । মানেতে মনেরে দহে, তাহাও তোমারে সহে, মিনতি সামার, বোধ হয় শর, বল কি কারণে II ১ { সুধামুখী মুগ বিরল করে না । বিরল বিষেতে, না পারি জ্বলিতে, তুমি তা বুঝন । অমিয আসক্ত জন, গরল খাইবে কেন, সুধা কর দান, বাচাও জীবন, অধীনে বধো না | ১ | ওই দেখনালো গই আসিছে হাসিতে ২ মোর মনোরঞ্জন। দেখ যাহার কারণ, ওষ্ঠীগত মোর প্রাণ, তার দরশনে কি করিবে গঞ্জন । প্রক্তিগাদ অর্পণে, লোমাঞ্চ হরিষ মনে,দুখ হলো ভঞ্চন । জালিঙ্গন করিবারে, কুচ তুঙ্গ নৃত্য করে, নয়ন রাথিতে চাহুে করি অঞ্জন | ১ ।