পাতা:গীতা-গ্রন্থাবলী (উপেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়).djvu/১৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উত্তর ਗੋਣ। ዄbጭ মুহূৰ্ত্তমপি যে গচ্ছেন্নালাগ্রে মনসা সহ । সৰ্ব্বং তরতি পাপানং তস্ত জন্মশতাঙ্গিতম্। ১• ॥ দক্ষিণ পিঙ্গল নাড়ী বহ্নিমণ্ডলগোচরা । দেবযানমিতি জ্ঞেয় পুণ্যকৰ্ম্মানুসারিণী ॥ ১১ ॥ ইড়া চ বামনিশ্বাসঃ সোমমণ্ডলগোচর । পিতৃযানমিতি জ্ঞেয়া বামমাশ্রিত্য তিষ্ঠতি ॥ ১২ ॥ গুদস্য পৃষ্ঠভাগেইস্মিন বীণাদগুস্ত দেহতৃৎ । দীর্ঘাস্থি মৰ্দ্ধি পৰ্য্যন্তং ব্রহ্মদণ্ডেতি কথাতে ॥ ১৩। আছেন, অঙ্গয় ও ব্যতিরেক দ্বারা সেই আত্মাকে জাগ্রৎ, স্বপ্ন ও সুষুপি এই অবস্তাত্রয়ের সমতীত বলিয়া জানিতে হইবে ॥ ৯Mার্শ যে যোগ চৈতন্যজোতির অনুভব নিবন্ধন মুহূৰ্ত্তকালও নাসিকার অগ্রভাগে দৃষ্ট নিক্ষেপ করেন, তিনি শতজন্মার্জিত পাতক হইতে মুক্তিলাভ করেন সন্দেহ নাই ॥ ১০ ॥

ঙ্গ অর্জুন । শরীরের দক্ষিণাংশে নিম্ন হইতে শিৱস্থিত সহস্রদল-কমল পর্যাক্ষ পিঙ্গল নামে যে নাড়ী বিদ্যমান আছে, উহা অগ্নির ন্যায় জ্যোতিস্মর্তী ও পুণ্যকৰ্ম্মানুসারিণী, উহাকে দেবযান বলে অর্থাৎ যে ব্যক্তি মনকে বশীভূত ও ঐ নাড়ীতে নিহিত করত সাধনা করেন, তিনি সুরগণের স্থায় শূন্যপথ অবলম্বন পূর্বক অবলীলাক্রমে সকল স্থানে গমনাগমন করিতে সমর্থ তন। এই কারণেই ঐ নাড়ীকে দেবযান বলা যায় ॥ ১১ ॥

শরীরাভ্যন্তরে বাম-চরণের নিম্নভাগ হইতে শিরস্থিত সহস্রদল-কমল পর্য্যন্ত ইড নামে প্ৰ” নাড়ী বিদ্যমান আছে, উহা শশাঙ্কমণ্ডলের ন্যায় প্রকাশমানা। সেই নাড়ীকে পিতৃষান বলে। যে যোগী ঐ নাড়ীতে মন নিহিত করিয়া সাধনা করেন, তিনি শূন্তপথে পিতৃলোকের বাসস্থান চন্দ্রমণ্ডল পৰ্য্যন্ত যাতায়াত করিতে সমর্থ হন,এই কারণেই উহার পিতৃবান নাম হইয়াছে ॥১২ জীবের শরীরাভ্যন্তরে মূলাধার হইতে শিরোদেশ পৰ্য্যন্ত বীণাদণ্ডের স্কায় একটি দীর্ঘ অস্থি বিদ্যমান আছে, উহাকে মেরুদণ্ড কহে। উহা স্বারাই দেহ ধৃত রহিয়াছে। উহাকে ব্ৰহ্মদও বলে। ঐ দণ্ডের মধ্যে যে ক্ষুদ্র রক্কের অভ্যন্তরে শিরোদেশ হইতে মূলাধার পর্য্যন্ত একটি নাড়ী আছে, বুদ্ধগণ তাছা