পাতা:গীতা-গ্রন্থাবলী (উপেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়).djvu/৩০৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শান্তি গীত। t నిసిసి নাহি তৎ শ্রয়তে শ্রেীত্রৈর্ম পৃষ্ঠাতে ত্বচ তথা । ন হি পশুতি চক্ষুস্তদ্রসনাস্বাদয়ের হি। ন চ জিভ্ৰতি তৎ ভ্রাপং ন বাক্যং ব্যাকরোতি চ ॥ ৪০ ॥ কর্ণ র্তাহাকে শ্রবণ করে না, স্পশেন্দ্রিয় তাহাকে স্পশ করে না, চক্ষু তাহাকে দর্শন করে না, রসনেন্দ্রিয় তাহাকে আস্বাদন করে না, নাসিক র্তাহার ঘ্রাণ লইতে পারে না, বাক্য র্তাহাকে বর্ণন কবিতে পারে না । এই নিমিত্ত শ্রুতি বলিয়াছেন,“ন চক্ষুষা গুহাত নাপি বাচ, নাম্বৈদেবৈস্তপসা কৰ্ম্মণ। বা” ॥ ৪e ॥ রূপ সল স্বল্প উপাধিসমূহ বাধিত হইলে অর্থাৎ সুযুপ্তি, মূৰ্চ্চা ও সমাধি অবস্থাতে তাহাদের সামান্ততঃ অভাৰ প্রতীতি হইলে, সেই অভাবের সাক্ষিরূপে যিনি বর্তমান থাকেন, সেই সাক্ষীর বাধ কখনও সম্ভব হয় না । তাহা হইলে সাক্ষিত্ব সিদ্ধ হইতে পারে না। মূৰ্ত্তিমান ঘট-পটাদি পদার্থ সমূহ বিনষ্ট হইলে যেমন বিনাশের অযোগ্য একমাত্র আকাশ অৱশিষ্ট থাকে, তেমন অতদ্ব্যাবৃত্তি বা অতরিরশন বিচার দ্বার “নেতি নেতি” আর্থাৎ ইহা জাত্মা নহে, ইহা আত্মা নহে, ইত্যাদি শ্রুতিৰাকা অনুসারে সকল বাঙ্গজগৎ ৪ দেহইন্দ্রিয়াদি সমূহ নিরাকৃত হইলে অর্থাৎ অনাত্মরূপে বাধিত হইলে সৰ্ব্বৰাধের সাক্ষী যিনি অবশিষ্ট থাকেন, তিনিই বাধরহিত আত্মা । যদি কেহ এমন বলে, দেহেন্দ্রিয়াদি দৃশ্য বস্তুসমূহ বাধিত হইলে যে অবশিষ্ট আরও কিছু থাকে, এমন ৰোধ হয় না, সেই অভাবস্বরূপ বোধই সাক্ষী শব্দৰাচ্য, ৰাধরহিত, চৈতন্তস্বরূপ আত্মা । অতএৰ শ্ৰুতু্যক্ত অতদ্ব্যাবৃত্তি বিচারের দ্বারা স্থল হইতে কারণ পৰ্য্যন্ত অনাত্ম ৰস্তুসমূহকে যুক্তির সহিত “ইহা আত্মা নহে,” এইরূপে নিষেধ করিলে নিষেধের অযোগ্য প্রত্যকৃম্বরূপ আত্মাই অবশিষ্ট থাকেন। মন, বুদ্ধি, ইঞ্জিয়গণের অনুভবগম ও প্রত্যক্ষ দেহাদি অহঙ্কার পৰ্য্যৰ নিখিল বস্তু বাধিতরূপে ত্যাগ করিতে পারা যায়। পরন্তু মন বুদ্ধি ইন্দ্রিয়গণের অগম্য, প্রত্যক চৈতন্তরূপ আত্মা বাধের অযোগ্য, সৰ্ব্বৰাধের সাক্ষী, তিনিই সত্য, ইহা সিদ্ধান্তিত হয় । জ্ঞাত ও জ্ঞানাস্তরের অভাব জন্য তিনি অজ্ঞেয় অর্থাৎ তিনি বুদ্ধ্যাদিকৃত জ্ঞানের বিষয় নহেন, তিনি স্বয়ং অঙ্গভৰৰূপ জ্ঞানস্বরূপ, তিনি দেশ, কাল, বস্তু-পরিচ্ছেদশূন্য, অনন্ত । শ্রুতিতে উক্ত হইয়াছে, “নিত্যং বিভূং সৰ্ব্বগতং মুস্থঙ্কং। আকাশবং সৰ্ব্বগতশ্চ নিতাঃ।