পাতা:গীতা-গ্রন্থাবলী (উপেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়).djvu/৩১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শান্তি গীতা । לכיסא অহং সৰ্ব্বাত্মন ত্যক্ত সৰ্ব্বভাবেন সৰ্ব্বদা । অহমৰ্ম্মীত্যহং ভামি বিস্তৃজ্য কেবলো ভব ॥ ৩৩ ॥ জাগ্রদপি মুম্বুপ্তিস্থো জাগ্রদ্ধশ্ববিবর্জিত: । সৌষুপ্তে ক্ষণিতে ধৰ্ম্মে ত্বজ্ঞানে চেতন: স্বয়ম্ ॥ ৩৪ ৷ ক্তিত্বা স্থলুপ্তাবিজ্ঞানং যদুীবো ভাববর্জিত: | প্রজ্ঞয়া স্বরূপং জ্ঞাত্বা প্রজ্ঞাঙ্গীনস্তথা ভব ॥ ৩৫ ৷ ন শব্দঃ শ্রবণং নাপি ন রূপং দর্শনং তথা । ভাবাভাবে ন বৈ কিঞ্চিং সদেবাস্তি ন কিঞ্চন ॥ ৩৬ ॥ সুস্থক্ষয় ধিয়া বুদ্ধা স্বরূপং স্বস্তু চেতনম্। বুদ্ধে জ্ঞানেন লীনায়াং যত্তচ্ছদ্ধস্বরূপকম্ ॥ ৩৭ ৷ ইতি তে কথিতং তত্ত্বং সরভূতং শুভাশয় । শোকো মোক্তস্থয়ি নাস্তি শুদ্ধরূপোহসি নিষ্কলঃ ॥ ৩৮ ॥ শাস্তুত্রত উবাচ । শ্রীত্ব প্রোক্তং বাসুদেবেন পার্থে, চিত্বাসক্তিং মায়িকেইসত্যরূপে । ত্যক্ত সৰ্ব্বং শোকসন্তাপ-জলিং,জ্ঞাত্ব তত্ত্বং সারভূতং কৃতাৰ্থ ॥৩৯ আছে ও নাই, এ উভয়ই বুদ্ধি-ধৰ্ম্ম, তাহা সৰ্ব্বপ্রকারে পরিত্যাগ করিবে। সৰ্পদ। সকল প্রকারে অহংভাব পরিত্যাগ কর ; “আমি আছি” বা “আমি প্রকাশ পাইতেছি এ ভাব পরিত্যাগ করিয়া কেবল আত্মরূপ হও ॥৩৩ ॥ .তুমি জাগ্ৰৎ থাকিয়া ও মুমুপ্তিস্থ অর্থাৎ জাগ্রদ্ধৰ্ম্ম ইন্দ্রিয়াদি ব্যাপার ও স্বষুপ্তিধৰ্ম্ম অজ্ঞান-বিবর্জিত। সুষুপিধৰ্ম্ম অজ্ঞান বিলীন হইলে কেবল স্বয়ং চৈতন্যমাত্রই অবশিষ্ট থাকেন ॥ ৩৪ ॥ স্বস্তৃপ্তিধৰ্ম্ম অজ্ঞানকে পরিত্যাগ করিলে যে ভাৰবৰ্জিত-ভাবে দুর্ভি পায়, প্রজ্ঞাদ্বারা তাহাই আত্মভাবে জানিয়া প্ৰজ্ঞাহীন হও ॥ ৩e ॥ সেই আত্মবিযয়ে 'ন' শব্দের শ্রবণ নাই এবং তাহার রূপ বা দর্শন নাই ও ভাবাভাব কিছুই নাই। মুহুৰ্ম্ম বুদ্ধিতে সেই সন্ধ্ৰপ চৈতন্যমাত্রকেই নিজরূপ জান । বৃত্তিজ্ঞানের সহিত বুদ্ধি বিলীন হইলে যাহা অবশিষ্ট থাকে, তাছাই আপনার অfত্মা বলিয়া লক্ষ্য কর এবং নিজকে অভিন্ন ব্রহ্মরূপে জান ॥৩৬-৩৭n হে শুভাশয়! এই সারভূত তত্ত্ব তোমাকে বলিলাম, তোমাতে শোকমোহাদি কিছু নাই, তুমি নিত্য-শুদ্ধ ও নিষ্কল, ইহা অবধারণ কর ॥৩৮ শাস্তব্ৰত বলিলেন, জর্জুন বামুদেবোত্ত উপদেশ সমূহ দ্বারা সারভূত তত্ত্ব