পাতা:গোবিন্দ দাসের করচা.djvu/১৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


(t?, গোবিন্দ দাসের করচা নানাবিধ ফুল ফুটে করিয়াছে আলা। প্রকৃতির গলে যেন জুলিতেছে মালা ॥ রজনীতে কত লতা ধগ ধগি জলে । গাছে গাছে জোনাকী জলিছে দলে দলে ॥ ক্ষুদ্র এক নদী বহে ঝুরু ঝুরু স্বরে। তার ধারে বসি প্রভু সন্ধ্যা পূজা করে। রজনীতে বসি গিয়া এক বৃক্ষতলে। । আফ্রিাত্রি যাপ ইহ প্রভু মোরে বলে ॥ এই মাত্র বলি গোরা মুদিয়া নয়ন। হরিনামে করিলেন রজনী যাপন ৷ ক্ষুধাতৃষ্ণা নাহি লাগে প্রভুর কৃপায়। সেই লাগি পড়ে থাকি যথায় তথায় ॥ যেই দিন বলে প্ৰভু ভিক্ষা করিবারে । সেইদিন যাই মুহি গৃহস্থের দ্বারে । প্রাতে উঠি যাই মোরা গুর্জরী নগরে । বহুতর লোক এথা মুখে বাস করে ॥ এইখানে বহু অট্টালিকা শোভা পায় । নগরের ধারে গিয়া বৈসে গোরারায় ॥ এস্থানে অগস্ত্যকুণ্ড নামে কুও হয় । কুণ্ডে স্নান করি হৈলা আনন্দ উদয় ॥ গোরারায় অগস্ত্য কুণ্ডেতে করি স্বান । কুওতীরে বসি করে হরিগুণ গান ৷ ক্রমে দুই চারি জন লোক দেখা দিল। এক বিপ্ৰ দ্বন্ধ চিনি আনি কাছে দিল । কেহ বলে অতিথি হে মোর গৃহে চল । কেহ বলে পুনঃ তুমি কৃষ্ণনাম বল । তব মুখে হরিনাম বড়ই মধুর। নাম শুনি শোক তাপ সব হৈল দূর ॥ তব মুখে কৃষ্ণনাম অমৃত সমান। কহ কহ কৃষ্ণকথা জুড়াক পরাণ । কার কথা কেবা শোনে না কহিলা বাণী । দেখিতে প্রভূরে আসে কত কত জ্ঞানী ॥ চক্ষু মুদি গোরাটা দুলিতে লাগিল । নয়ন ফাটিয়া অশ্রু আসি দেখা দিল। লোকজন নাহি দেখে মোর গোরারায় । কৃষ্ণ হে বলিয়া কান্দি স্মৃত্তিক ভিজায় ॥ ফোপারি ফোপারি প্রভু কান্দিতে লাগিল। বাধন খুলিয়া পৃষ্ঠে জটা এলাইল । লোমাঞ্চিত কলেবর কান্দিয়া আকুল। আলুথালু বেশে প্রভু কহে নানা ভুল ৷ | কভু প্ৰভু মত্ত হয়ে গড়াগড়ি যায়। আছাড়ি বিছাড়ি কভু পড়য়ে ধরায় ॥ ঐ মোর প্রিয়সখা মুকুন্দ মুরারি। " এই বলি ধাইয়া যান চৈতন্ত ভিখারী ॥ কখন বলেন এস প্রাণ নরহরি । কৃষ্ণনাম শুনি তোরে আলিঙ্গন করি ॥ ৬ এই ভাবে নানা কথা কহে গোরারায়। ভাবে মত্ত হয়ে প্রভু ছুটিয়া বেড়ায় ॥ আশ্চর্য্য প্রভাব শুনি যত মহাজন । প্রভূর সমীপে সবে করে আগমন ॥ অর্জুন নামেতে এক পণ্ডিত মহান। বুঝায় প্রভুরে বলি শাস্ত্রের প্রমাণ ॥ অৰ্জুন বলিলা জীবতত্ত্ব নাহি মানি। আত্মতত্ত্ব জীবতত্ত্ব দুই এক জানি ॥ প্রভু কহুে আপনি পণ্ডিত মহাশয় । শাস্ত্রের প্রমাণ শুনি করহ নিশ্চয় ॥

  • এই নরহরি যে শ্ৰীখণ্ডের নরহরি সরকার তৎসম্বন্ধে কোন সন্দেহ নাই, কিন্তু পূর্ববর্তী পদে মুকুন্দ মুরারি ভগবানের নামান্তর কিংবা মুকুন্দ দত্ত ও মুরারি গুপ্ত নামক পার্শ্বচরদ্বয়—তাহ টক বলা যায় না । ইহার পরে এক জায়গায় এই ছুটি ছত্র আছে—"প্ৰভু বলে মোর প্রাণ মুকুন্দ মুরারি।

} l, स्त्रांनिग्न छेऊि ह७ शमाग्न श्रांभांद्रि ॥"