পাতা:গোবিন্দ দাসের করচা.djvu/৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ዓó গোবিন্দ দাসের করচা আছে, এ কথা বলা যাইতে পারে। অবশু এতগুলি আবর্জন দূর করিয়া বৈষ্ণব ধৰ্ম্ম তথা মহাপ্রভুকে রক্ষা করিতে হইলে অনেক অর্থের দরকার হইবে। তজ্জন্ত তাহারা কি করিতেছেন ? প্রতিপক্ষীয়েরা কিরূপে এই প্রচার কার্য্য চালাইতেছেন, তাহার আর একটা উদাহরণ দিব। মহারাজ মনীন্দ্র চন্দ্র নদী বাহাদুর ইহঁাদের উত্তেজন পূর্ণ প্রবন্ধাদি পড়িয়া কোন এক বৈষ্ণবকে লিখিয়াছিলেন “দীনেশ বাবু বৈষ্ণব ধৰ্ম্ম নষ্ট করিতেছেন।” এ সম্বন্ধে আমি মহারাজা বাহাদুরকে চিঠি লিখায় তিনি উত্তরে আমাকে জানাইয়াছেন, যে তিনি একটা সাময়িক ভাবের বশবৰ্ত্তী হইয়া এইরূপ লিখিয়াছিলেন, তাহার বিনা অনুমতি সেই ব্যক্তি ঐরূপ চিঠি লিখিয়া ভাল করেন নাই । বৈষ্ণব গুরুদিগের শিষ্যদের অবস্থা একটু শঙ্কটাপন্ন। যদি কোন গুরু কিছু বলেন, তবে শিষ্যদের তৎসম্বন্ধে সন্দেহ করা পাপ হয়। কিন্তু তাই বলিয়া যিনি ইতিহাস লিখিবেন, তিনি তালকে তিল এবং তিলকে তাল করিতে পারেন না । আমার বিরুদ্ধে প্রধান অভিযোগ এই যে আমি বৈষ্ণব ধৰ্ম্ম নষ্ট করিতেছি। বঙ্গীয় গর্ভর্ণমেণ্টের নিকট যে আবেদন গিয়াছিল, তন্মধ্যে এইটি বিশেষ অভিযোগ ছিল। কিন্তু এ সম্বন্ধে সামান্ত দুই একজন মোড়া বৈষ্ণব যাহাই বলুন না কেন, বাহিরের লোকদের মত অন্তরূপ। ১৯১৯ সালের ২৯৫ সংখ্যক কলিকাতা রিভিউ পত্রিকায় অধ্যাপক এ, সি, আণ্ডারউড “চৈতন্ত এবং বঙ্গীয় সম্প্রদায়” শীর্ষক একটি মুদীর্ঘ প্রবন্ধ প্রকাশিত করেন, তাহার একটি অংশের মৰ্ম্মাম্বুবাদ প্রদানকরিতেছি —* “ইহার পরে রায়সাহেব দীনেশচন্দ্র সেনের পুস্তকগুলি প্রকাশিত হওয়ার পদে বৈষ্ণব সাহিত্য সম্বন্ধে আমাদের জ্ঞানের পথ খুৰ সুগম হইয়া গিয়াছে। ১৯১১ খৃঃ অঘে তাহার ইংরাজীতে লিখিতে বঙ্গভাষাও সাহিত্যের ইতিহাস প্রকাশিত হয় । তাহার বিরাট শ্রমের ফলস্বরূপ এই পুস্তক খানি প্রকাশিত হওয়া মাত্র বার্থ, সেনাট, রিচ, ডেভিস, গ্রিয়ারসম, বারনেট, কারণ, এবং ওল্ডেনবার্গ প্রভৃতি বিখ্যাত য়ুরোপীয় পণ্ডিত গণের আদর লাভ করে......... একথা সৰ্ব্বববাদী

  • But the situation has greatly changed since Rai Shahib Dinesh Chandra Sen began to publish his patient and scientific researches into the History of Bengali Language and literature. The worth of his painstaking labours was immediately recognised in the West by such well-known Oricntalists as Barth, Scnart, Rhys Davids, Grierson, Barnett, Kern and Oldenberg...... It is generally admitted that one of the most valuable chapters in Mr. Sens History is the lengthy one in which he treats of the Vaisnava Literature of Bengal He has returned to his subject in his Vaisnava Literature of Medieval Bengal and in his Chaitanya and his companions, both published in 1917, while in his Banga Sahitya Parichaya (1914) will be found the Bengali texts of many Vaisnavn lyrics and extracts from their historical works. Though the Rai Shahib is not himself a Vaisnavn, he brings to the enterpretation of the Vaisnava literature of his country a fine enthusiasm and a sympathetic imagination. At the same time his imagination and sympathy are controlled

by his historical sense."