পাতা:গোবিন্দ দাসের করচা.djvu/৯৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গোবিন্দ দাসের করঢা ώ লক্ষ লক্ষ লোক আসি দরশন দিল । কৃষ্ণভক্তি দেখে সবে আশ্চর্ষ্য হইল ॥ ফুল ফেলি মারে কেহ কেহ দেয় মালা । প্রভূর রূপেতে চারি দিক কৈলা আলী। কোটি মদন সে রূপের নহেক তুলনা । ডমরুর মধ্য জিনি কটির বলনা + ॥ বিশাল নয়নে যেই দিকে যবে চায়। সেই দিকে নীলপদ্ম বরষয়া যায়। আজামুলম্বিত বাহু অতিদীর্ঘ কায় । দন্তে তৃণ করি গোরা দাস্ত ভক্তি চায় ॥ এইরূপে নৃত্য গীতে রাত্রি পোহাইল । বহু লোক দেখি গোরা কহিতে লাগিল ॥ মোর বাক্য মন দিয়া শুন সবে ভাই। কৃষ্ণে আর কৃষ্ণনামে কিছু ভেদ নাই ॥ ভজ কৃষ্ণ ভাব কৃষ্ণ কহ কৃষ্ণনাম। নাম-বলে তোমরা ভাই যাবে নিত্য ধাম ॥ এ সকল যাহা দেখ সব মিথ্যা হয়। প্রকৃতির ছায়া মাত্র বেদে ইহা কয় ॥ সাধের প্রতিমা তব থাকিবে পড়িয়া । ষবে যম আসি গলা ধরিবে টিপিয়া ॥ পালঙ্কে আর ভূমি শয্যায় নাহি কোন ভেদ ॥ ভেদ বুদ্ধি করে যারা তারা পায় খেদ ॥ বিষয় পাইয়া যেই করে অহঙ্কার । নরকের কীট সেই শাস্ত্রের বিচার ॥ রাজায় দবিদ্রে ভেদ কিছুমাত্র নাই। ভেদ বুদ্ধি অজ্ঞানতা করি দেয় ভাই ॥ এক মুষ্টি অন্নে পুরে রাজার উদর । তাতেই দরিদ্র হয় সস্তুষ্ট অস্তর ॥ ভূতলে গুইয়া নিঃস্ব মুখে নিদ্রা যায়। রাজার নাহিক নিদ্রা অমূল্য শয্যায়। রাজা নাছি খায় সোণ হীরা পারা মতি। ধনমদে নাহি ভাবে অখিলের পতি ॥ স্বত্যুকালে যেইরূপে দরিদ্র মরিবে। সেইরূপে ভূস্বামী যমের ঘরে যাবে। so বলন = গঠন । রাজার নয়নে মায়া ঠুলি আছে বাধা । ঘানীর বলদ সম সৰ্ব্বদা সে আমাধা ॥ এক স্থানে ঘুরে মরে ঘানীর বলদ । কোটি বৎসরেও তার না ফুরায় পথ ॥ আত্মারাম উড়ে গেলে থাকিবে দেহ জড় । ভাঙা পিজিরার স্তায় করিবে নড় বড় ॥ আদরের দেহ যাবে পচিয়া সড়িয়া । শৃগাল কুকুরে থাবে উদর পুরিয়া ॥ অহঙ্কারে মত্ত জীব সংসারে মজিয়া । বিষয় বিষয় করি মরে গুমরিয়া ॥ কন্যা পুত্ৰ অট্টালিকা পোকুর উদ্যান। কামিনী কনক আদি পাইয়া অজ্ঞান ॥ কেবা কার কন্ঠ পুত্র কেবা কার পতি । সব জড় ভাব ছাড়ি কর কৃষ্ণে মতি ॥ পুত্র মিথ্য। কন্যা মিথ্যা মিথ্যা ধন ধান্ত । এক মাত্র সত্য বস্ত হয় সে চৈতন্ত ॥ পচা গৃহস্থের কথা কব কত আর । পুত্র কন্যা বিভবে মজিয়া জর জর ॥ বিষয় বাড়িলে করে কতই মন্ত্রণা . বিট কীট সম পায় বিস্তর যাতনা। সৰ্ব্বত্র কৃষ্ণের মূৰ্ত্তি করে ঝল মল । সে দেখিতে পায় ষার আঁখি নিরমল ॥ চৰ্ম্ম চক্ষে দেখে মুখ বিষয়ে আসক্ত। দিব্য জ্ঞান চক্ষে দেখে নিত্য মুক্ত ভক্ত। অন্ধীভূত চক্ষু যার বিষয় ধূলিতে। কেমনে সে স্বক্ষ তত্ত্ব পাইবে দেখিতে। প্রেম প্রেম করে সবে প্রেম জানে কেবা । প্রেমের কি তত্ত্ব হয় রমণীর সেবা । অভেদ পুরুষ নারী যখন জানিবে। তখন প্রেমের তত্ত্ব অব ফরিবে। অপত্য লাগিয়া আৰ্ত্তি যদি প্রেম হয়। उी इहेरल ८७थभउद्ध क्छूिहे उ नग्न ॥