পাতা:গোরা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।


 বিনয় কহিল, “না, মা।”

 আনন্দময়ী। তােমাকে এইখানেই খেতে হবে।

 বিনয় একবার গােরার মুখের দিকে চাহিল। গােরা কহিল, “বিনয়, অনেক দিন বাঁচবে। তােমার ওখানেই যাচ্ছিলুম।”

 আনন্দময়ীর বুক হালকা হইয়া গেল- তিনি তাড়াতাড়ি নীচে চলিয়া গেলেন।

 দুই বন্ধু ঘরে আসিয়া বসিলে গােরা যাহা-তাহা একটা কথা তুলিল— কহিল, “জান ? আমাদের ছেলেদের জন্যে একজন বেশ ভালো জিম্‌নাষ্টিক মাস্টার পেয়েছি। সে শেখাচ্ছে বেশ।”

 মনের ভিতরের আসল কথাটা এখনও কেহ পাড়িতে সাহস করিল না। দুই জনে যখন খাইতে বসিয়া গেল তখন আনন্দময়ী তাহাদের কথাবার্তায় বুঝিতে পারিলেন এখনাে তাহাদের উভয়ের মধ্যে বাধাে-বাধো রহিয়াছে পর্দা উঠিয়া যায় নাই। তিনি কহিলেন, “বিনয়, রাত অনেক হয়েছে, তুমি আজ এইখানেই শুয়াে। আমি তােমার বাসায় খবর পাঠিয়ে দিচ্ছি।”

 বিনয় চকিতের মধ্যে গােরার মুখের দিকে চাহিয়া কহিল, “ভুক্ত্বা রাজ- বদাচরেৎ। খেয়ে রাস্তায় হাঁটা নিয়ম নয়। তা হলে এইখানেই শােওয়া যাবে।”

 আহারান্তে দুই বন্ধু ছাতে আসিয়া মাদুর পাতিয়া বসিল। ভাদ্রমাস পড়িয়াছে ; শুক্লপক্ষের জ্যোৎস্নায় আকাশ ভাসিয়া যাইতেছে। হালকা পাৎলা সাদা মেঘ ক্ষণিক ঘুমের ঘোরের মতাে মাঝে মাঝে চাঁদকে একটু- খানি ঝাপসা করিয়া দিয়া আস্তে আস্তে উড়িয়া চলিতেছে । চারি দিকে দিগন্ত পর্যন্ত নানা আয়তনের উঁচুনিচু ছাতের শ্রেণী ছায়াতে আলােতে এবং মাঝে মাঝে গাছের মাথার সঙ্গে মিশিয়া যেন সম্পূর্ণ প্রয়ােজনহীন একটা প্রকাণ্ড অবাস্তব খেয়ালের মতাে পড়িয়া রহিয়াছে।

 গির্জার ঘড়িতে এগারােটার ঘণ্টা বাজিল ; বরফওয়ালা তাহার শেষ

হাঁক হাঁকিয়া চলিয়া গেল। গাড়ির শব্দ মন্দ হইয়া আসিয়াছে। গােরাদের

১০৬