পাতা:গোরা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।


 গােরা কহিল, “না মা, এ বিয়ে এখানে হতে পারবে না- আমি বলছি, আমার কথা শোনো।”

 আনন্দময়ী কহিলেন, “কেন, বিনয় তাে ওদের মতে বিয়ে করছে না।”

 গাের কহিল, “ও-সমস্ত তর্কের কথা। সমাজের সঙ্গে ওকালতি চলবে। না। বিনয় যা খুশি করুক, এ বিয়ে আমরা মানতে পারি নে। কোলকাতা শহরে বাড়ির অভাব নেই। তার নিজেরই তাে বাসা আছে।”

 বাড়ি অনেক মেলে, আনন্দময়ী তাহা জানিতেন। কিন্তু বিনয় যে আত্মীয়বন্ধু সকলের দ্বারা পরিত্যক্ত হইয়া নিতান্ত লক্ষ্মীছাড়ার মতো কোনাে গতিকে বাসায় বসিয়া বিবাহকর্ম সারিয়া লইবে, ইহা তাঁহার মনে বাজিতেছিল। সেই জন্য তিনি তাহাদের বাড়ির যে অংশ ভাড়া দিবার জন্য স্বতন্ত্র রহিয়াছে সেইখানে বিনয়ের বিবাহ দিবার কথা মনে মনে স্থির করিয়াছিলেন। ইহাতে সমাজের সঙ্গে কোনাে বিরােধ না বাধাইয়া তাঁহাদের আপন বাড়িতে শুভকর্মের অনুষ্ঠান করিয়া তিনি তৃপ্তিলাভ করিতে পারিতেন।

 গােরার দৃঢ় আপত্তি দেখিয়া দীর্ঘনিশ্বাস ফেলিয়া কহিলেন, “তােমাদের যদি এতে এতই অমত তা হলে অন্য জায়গাতেই বাড়ি ভাড়া করতে হবে। কিন্তু তাতে আমার উপরে ভারী টানাটানি পড়বে। তা হােক, যখন এটা হতেই পারবে না তখন এ নিয়ে আর ভেবে কী হবে।”

 গােরা কহিল, “মা, এ বিবাহে তুমি যােগ দিলে চলবে না।”

 আনন্দময়ী কহিলেন, “সে কী কথা গােরা, তুই বলিস কী! আমাদের বিনয়ের বিয়েতে আমি যােগ দেব না তো কে দেবে!”

 গােরা কহিল, “সে কিছুতেই হবে না মা।”

 আনন্দময়ী কহিলেন, “গােরা, বিনয়ের সঙ্গে তাের মতের মিল না হতে পারে, তাই বলে কী তার সঙ্গে শত্রুতা করতে হবে?”

 গােরা একটু উত্তেজিত হইয়া উঠিয়া কহিল, “মা, এ কথা তুমি অন্যায় বলছ। আজ বিনয়ের বিয়েতে আমি যে আমােদ করে যােগ দিতে পারছি

৫০৩