পাতা:গোরা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।


সূত্রই সর্বত্র মিলন রক্ষা করে। গােরা যখনই গ্রামে গেছে সেখানকার দেবমন্দিরে প্রবেশ করিয়া মনে মনে গভীরভাবে ধ্যান করিয়া বলিয়াছে, ‘এইখানেই আমার বিশেষ স্থান; এক দিকে দেবতা ও এক দিকে ভক্ত, তাহারই মাঝখানে ব্রাহ্মণ সেতুস্বরূপ উভয়ের যােগ রক্ষা করিয়া আছে।’ ক্রমে গােরার মনে হইল, ব্রাহ্মণের পক্ষে ভক্তির প্রয়ােজন নাই। ভক্তি জনসাধারণেরই বিশেষ সামগ্রী। এই ভক্ত ও ভক্তির বিষয়ের মাঝখানে যে সেতু তাহা জ্ঞানেরই সেতু। এই সেতু যেমন উভয়ের যােগ রক্ষা করে তেমনি উভয়ের সীমাও রক্ষা করে। ভক্ত এবং দেবতার মাঝখানে যদি বিশুদ্ধ জ্ঞান ব্যবধানের মতাে না থাকে তবে সমস্তই বিকৃত হইয়া যায়। এইজন্য ভক্তিবিহ্বলতা ব্রাহ্মণের সম্ভোগের সামগ্রী নহে, ব্রাহ্মণ জ্ঞানের চুড়ায় বসিয়া এই ভক্তির রসকে সর্বসাধারণের ভােগার্থে বিশুদ্ধ করিয়া রাখিবার জন্য তপস্যারত। সংসারে যেমন ব্রাহ্মণের জন্য আরামের ভােগ নাই, দেবার্চনাতেও তেমনি ব্রাহ্মণের জন্য ভক্তির ভােগ নাই। ইহাই ব্রাহ্মণের গৌরব। সংসারে ব্রাহ্মণের জন্য নিয়মসংযম, এবং ধর্মসাধনায় ব্রাহ্মণের জন্য জ্ঞান।

 হৃদয় গােরাকে হার মানাইয়াছিল, হৃদয়ের প্রতি সেই অপরাধে গােরা নির্বাসনদণ্ড বিধান করিল। কিন্তু নির্বাসনে তাহাকে লইয়া যাইবে কে? সে সৈন্য আছে কোথায়!


৭২

গঙ্গার ধারের বাগানে প্রায়শ্চিত্তসভার আয়ােজন হইতে লাগিল।

 অবিনাশের মনে একটা আক্ষেপ বােধ হইতেছিল যে, কলিকাতার বাইরে অনুষ্ঠানটা ঘটিতেছে, ইহাতে লােকের চক্ষু তেমন করিয়া আকৃষ্ট হইবে না। অবিনাশ জানিত, গোরার নিজের জন্য প্রায়শ্চিত্তের কোনাে প্রয়ােজন নাই, প্রয়ােজন দেশের লােকের জন্য। মরাল এফেক্ট্। এইজন্য ভিড়ের মধ্যেই

৫৬৩