বিষয়বস্তুতে চলুন

পাতা:গৌড়ের ইতিহাস (প্রথম খণ্ড).djvu/১৩৯

উইকিসংকলন থেকে
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

ষষ্ঠ অধ্যায় । * >> ৫ম রাজা নারায়ণ পাল দেব । २०० शृं:-२२¢ शूः । নারায়ণ পাল, বিগ্রহপালদেবের ঔরসে ও লজ্জাদেবীর গর্ভে জন্ম গ্রহণ করেন । ভাগলপুরে নারায়ণপালের রাজত্বকালের সপ্তদশ বর্ষের তাম্রশাসন পাওয়া গিয়াছে। তাহা হইতে নারায়ণপালদেবের সময়ের নানাকথা জানিতে পাই। তাম্রশাসনের প্রথম শ্লোক এইঃ “স্বস্তি । মৈত্রীং কারুণ্যরত্নপ্রমুদিত হৃদয়ঃ প্রেয়সীং সন্দধানঃ সম্যক্সম্বোধিবিদ্যাসরিদমলজলক্ষালিত জ্ঞানপঙ্ক: । জিত্ব যঃ কামকারি প্রভবমভিভবংশাশ্বতীং বা যশোহন্ধিং স ত্রমান লোকনাথো জয়তি দশবলোহন্যশ্চ গোপালদেবঃ ” কারুণ্যরত্ন-প্রমুদিত-হৃদয়, মারজয়ী দশবল বুদ্ধকে নমস্কার করিয়া এই তাম্রশাসনের বিষয় বর্ণিত হইয়াছে। নারায়ণপাল বৌদ্ধ ছিলেন। এই শ্লোকে বংশ প্ৰবৰ্ত্তক গোপাল দেবেরও নাম আছে। বুদ্ধদেবের যে সকল ৰিশেষণ আছে, গোপালদেবকেও, সেই সকল বিশেষণে বিশে ষিত করা হইয়াছে। তাহার পর ধৰ্ম্মপালের সম্বন্ধে লিখিত হইয়াছে — “লক্ষ্মীজন্মনিকেতবংশ মকরোদ বোলুং ক্ষমন্ত্রাভরং পক্ষচ্ছেদভয়াচুপস্থিতবতাং একাশ্রয়োভূতৃতাম্। মৰ্য্যাদা পরিপালনৈকনিরত: শৌর্য্যালয়োহুম্মাদভূদ্র দুগ্ধান্তোধিবিলাসিহাসিমহিমা শ্ৰীধৰ্ম্মপালো নৃপঃ ॥” জানা যাইতেছে, ধৰ্ম্মপালের সময় বংশের অত্যন্ত শ্ৰীবৃদ্ধি হইয়াছিল। রাজ্যনাশের ভয়ে অনেক রাজা তাহার রাজ্যে আশ্রয় গ্রহণ করিয়াছিলেন, ধৰ্ম্মপাল তাহদের মর্য্যাদা রক্ষা করিতেন। একাধারে বীরত্ব ও বাৎসল্যের