পাতা:চন্দ্রশেখর- বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


r めや চন্দ্রশেখর। • দ্বিতীয় পরিচ্ছেদ ।” مسسمبسـ و)o البمے ভীম পুষ্করিণী । ভীম নামে বৃহৎ পুষ্করিণীর চারি "ধারে, ঘন তাত গাছের সারি। অস্তগমনোন্মুখ,হুর্য্যের কেনাভ রৌদ্র পুষ্করিণীর কাল জলৈ পড়িয়াছে ; কাল জলে রোধের সঙ্গে, তালগাছের কাল ছায়। সকল অঙ্কিত হুইয়াছে । একটি ঘাটের পাশে, কয়েকটি লতামণ্ডিত ক্ষুদ্র বৃক্ষ, লতায় লতায় একত্র গ্রথিত হইয়া, জল পৰ্য্যন্ত শাখা লম্বিত করিয়া দিয়া, জলবিহারিণী কুলকামিনীগণকে আবৃত করিঃ রাথিত । সেই আবৃত অম্লান্ধকার মধ্যে শৈবালনী এবং স্বন্দরী ধাতুকলগী হস্তে জলের সঙ্গে ক্রীড়া করিতেছিল' ' ' बूबउँौद्र সঙ্গে জলের ক্রীড়া ‘কি ? ভাগ আমরা বুঝি না, আমরা জল নই। বিনি কখন রূপ দেখিয়া গলির জল হইয়াছেন, তিনিই বলিতে পারবেন। তিনিই বলিতে পরিবেন, কেমন করিয়া জল কলসীতাড়নে তরঙ্গ তুলিয়া, বাহুবিলম্বিত অলঙ্কার-শিল্লিতেবু তালে, তালে তালে নাচে । হৃদয়োপরি গ্রথিতু জলজগুপেরমাল দোলাইয়া, সেই তালে তালে নাচে । সস্তরণ কুকুৰুলী ক্ষুদ্র বিহঙ্গমটিকে দোলাইয়া, সেই তালে তালে মাচে। যুবতীকে বেড়িয়া বেড়িয় তাহার বাহুড়ে, ಇ. স্বন্ধে, হৃদয়ে উকিঝুকি মারিয়া; দল তরঙ্গ তুলিয়া, তালে তালে নাচে।