পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক W እ»ዓ হৃদয়-যমুনা যদি ভরিয়া লইবে কুম্ভ, এসো ওগো এসো, মোর হৃদয়-নীরে । جاتھ তলতল ছলছল কাদিবে গভীর জল ওই দুটি স্বকোমল চরণ ঘিরে । আজি বর্ষ গাঢ়তম, নিবিড় কুস্তলসম মেঘ নামিয়াছে মম দুইটি তীরে । ও ই-যে শবদ চিনি, নূপুর রিনিকিঝিনি, কে গো তুমি একাকিনী আসিছ ধীরে । যদি ভরিয়া লইবে কুম্ভ, এসে ওগো এসে মোর হৃদয়-নীরে । যদি কলস ভাসায়ে জলে বসিয়া থাকিতে চাও আপন জুলে’ ; হেথা শু্যামজুর্বাদল, নবনীল নভস্তল, বিকশিত বনস্থল বিকচ ফুলে । ছুটি কালো আঁপি দিয়া মন যাবে বাহিরিয়া, অঞ্চল খসিয়া গিয়া পড়িবে খুলে, চাহিয়া বজুলবনে কী জানি পড়িবে মনে বসি’ কুঞ্জতৃণালনে স্যামল কুলে । যদি কলস ভাসায়ে জলে বসিয়া থাকিতে চাও আপন ভুলে । যদি গাহন করিতে চাহ, এসো নেমে এসো হেথা গহন-তলে । ነ নীলাম্বরে কী-বা কাজ, তীরে ফেলে এসো আজ, ঢেকে দিবে সব লাজ স্থনীল জলে । *