পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক যেখানে ধা-কিছু অাছে ; নদীস্রোতোনীরে আপনারে গলাইয়া দুই তীরে তীরে নব নব লোকালয়ে ক’রে যাই দান পিপাসার জল, গেয়ে যাই কলগান দিবস নিশীথে ; পৃথিবীর মাঝখানে উদয়-সমুদ্র হতে অস্ত-সিন্ধুপানে প্রসারিয়া আপনার তুঙ্গ গিরিরাজি আপনার স্ব দুর্গম রহস্তে বিরাজি ; কঠিন পাষাণক্রাড়ে তীব্র হিমবায়ে মানুষ করিয়া তুলি লুকায়ে লুকায়ে নব নব জাতি । ইচ্ছা করে মনে মনে স্বজাতি হইয়া থাকি সব লোকসনে দেশ দেশাস্তরে ; উইদুগ্ধ করি পান মরুতে মাতুষ হই আরব সস্তান সুদম স্বাধীন ; তিব্বতের গিরি তটে নিলিপ্ত প্রস্তরপুরী মাঝে, বৌদ্ধমঠে করি বিচরণ । দ্রাক্ষাপায়ী পারসীক ,গালাপকাননবাসী, তাতার নিভীক আশ্বা রূ৩, শিষ্টাচারী সতেজ জাপান, প্রবীণ প্রাচীন চীন নিশিদিনমান কম অল্প রত,—সকলের ঘরে ঘরে জন্মলাভ ক’রে লক্ট হেন ইচ্ছা করে । অরুগ্ন বলিষ্ঠ হিংস্ৰ নগ্ন ববরিত।— নাহি কোনো ধ মাধম, নাহি কোনো প্রথা, নাহি কোনো বাধfবন্ধ,—নাহি চিন্তাজর, নাহি কিছু দ্বিধাদ্বন্দ্ব, নাহি ঘর-পর, উন্মুক্ত জীবন-স্রোত বহে দিনরাত সম্মুখে আঘাত করি’, সহিয়া আঘাত