পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক অকাতরে ; পরিতাপ-জর্জর-পরানে বৃথা ক্ষোভে নাহি চায় অতীতের পানে, ভবিষ্যৎ নাহি হেরে মিথ্যা দুরাশায়— বত মান-তরঙ্গের চূড়ায় চুড়ায় নৃত্য ক’রে চলে যায় আবেশে উল্লাসি’,— উচ্ছ,স্থল সে-জীবন সে-ও ভালবাসি– কতবার ইচ্ছা করে সেই প্রাণঝড়ে ছুটিয়া চলিয়া যাই পূৰ্ণপাল ভরে লঘু তরী সম । হিংস্র ব্যাস্ত্ৰ অটবীর— আপন প্রচণ্ড বলে প্রকাও শরীর বহিতেছে অবহেলে ;–দেহ দীপ্তোজ্জল অরণ্যমেঘের তলে প্রচ্ছল্প- অনল বজের মতন—রুদ্র মেঘমকদম্বরে পড়ে আসি আতকিত শিকারের পরে বিছুJতের বেগে, অনায়াস সে মহিম—- হিংসাতীব্র সে আনন্দ সে দৃপ্ত গরিমা ইচ্ছ। করে একবার স্লাভি তার স্বাদ ;– ইচ্ছ{ করে বার বার মিটাইতে সাধ পান করি’ বিশ্বের.সক ল পাত্র হতে আনন্দমদিরা ধারা নব নব শ্ৰেণতে । হে কুন্দরী বস্থদ্ধরে, তোমা পানে চেয়ে কতবার প্রাণ মোর উঠিয়াছে গেয়ে প্রকা ও উল্লাসভরে ; ইচ্ছা করিয়াছে সবলে জাকড়ি" ধরি এ বক্ষের কাছে