পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক নীরবে দেখাও অঙ্গুলি তুলি” অকুল সিন্ধু উঠিছে আকুলি’, দূবে পশ্চিমে ডুবিছে তপন গগন-কোণে । কী অাছে হেথায়—চলেছি কিসের অন্বেষণে । বলে দেখি মোরে শুধfই তোমায়, অপরিচিতা,— ওক্ট যেথা জলে সন্ধ্যার কুলে দিনের চিতা, ঝলিতেছে জল তরল অনল, গলিয় পড়িছে অঙ্গরতল, দিকৃবধু যেন ছল-ছল জাগি অশ্রুজলে, হোথায় কি অগছে অণলয় তোমাব উৰ্মিমূগর সাগরেব পার, মেঘচম্বিত অস্তগিরির চরণতলে । তুমি হাসো, শুধু মৃগপানে চেয়ে কথা না ব'লে । হুহু ক’রে বায়ু ফেলিছে সতত দীর্ঘশ্বাস । অন্ধ আবেগে করে গর্জন কোনো দিকে চেয়ে নাহি হেরি তীর,