পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক অসীম রোদন জগং প্লাবিয়া 調 তুলিছে যেন ; তারি পরে ভাসে তরণী হিরণ, তারি পরে পড়ে সন্ধ্যা-কিরণ, ভারি মাঝে বসি’ এ নীরব হাসি হাসিছ কেন । আমি তো বুঝি না কী লাগি তোমার বিলাস হেন । যখন প্রথম ডেকেছিলে তুমি

  • কে যাবে সাথে *

চাহিল্প বারেক তোমার নয়নে নবীন প্রাতে ; দেখালে সমুখে প্রসারিত কর পশ্চিমপানে অসীম সাগর, চঞ্চল অা লে? অাশার মতন কঁপিছে জলে । তরীতে উঠিয়া শুধাতু তখন আছে কি হোথায় নবীন জীবন, আশার স্বপন ফলে কি হোথায়, সোনার ফলে । মুখপানে চেয়ে হাসিলে কেবল কথা না। ব’লে । তার পরে কতু উঠিয়াছে মেঘ, কখনো রবি, কখনো ক্ষুব্ধ সাগর কখনো শাস্ত ছবি । > > >