পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SS२ চয়নিক বেলা বহে যায়, পালে লাগে বায়, সোনার তরণী কোথা চলে যায়, পশ্চিমে হেরি নামিছে তপন অস্তাচলে । এখন বারেক শুধাই তোমায়, স্নিগ্ধ মরণ আছে কি হোথায়, আছে কি শাস্তি, আছে কি সুপ্তি তিমির-তলে | হাসিতেছ তুমি তুলিয়া নয়ন কথা না ব’লে । আঁধার রজনী আসিবে এখনি মেলিয়া পাখা, সন্ধ্য-আকাশে স্বর্ণ-আলোক পড়িবে ঢাকা । শুধু ভাসে তব দেহ-সৌরভ, শুধু কানে আসে জল-কলরব, গায়ে উড়ে পড়ে বায়ুভরে তব কেশের রাশি । বিকল হৃদয় বিবশ শরীর ডাকিয়া তোমারে কহিব অধীর— “কোথা আছ ওগো করহ পরশ নিকটে অসি’ ।” কহিবে না কথা, দেখিতে পাব না নীরব হাসি । ( ২৭ আগ্রহায়ণ, ১৩০ s ) —সোনার তরী