পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S88 চয়নিক গুরু গৌতমেরে । বিহঙ্গ-কাকলীগান, মধুপ-গুঞ্জনগীতি, জল-কলতান, তারি সাথে উঠতেছে গম্ভীর মধুর বিচিত্র তরুণ কণ্ঠে সম্মিলিত সুর শাস্ত সামগীতি । হেনকালে সত্যকাম কাছে আসি ঋষিপদে করিলা প্রণাম,— মেলিয়া উদার আঁখি রহিল। নীরবে। আচার্য আশীষ করি’ শুধাইলা তবে,— “কী গোত্র তোমার, সৌম্য, প্রিয়-দরশন।”— তুলি শির কহিল বালক,—“ভগবন, নাহি জানি কী গোত্র আমার । পুছিলাম জননীরে, কহিলেন তিনি,—সত্যকাম, বহু-পরিচর্যা করি পেয়েছিমু তোরে, জন্মেছিস ভর্তৃহীন জবালার ক্রোড়ে— গোত্র তব নাহি জানি । শুনি’ সে- বীরতা ছাত্রগণ মৃদুস্বরে আরম্ভিল কথা,— মধুচক্রে লোষ্ট্রপাতে বিক্ষিপ্ত চঞ্চল পতঙ্গের মতো—সবে বিস্ময়-বিকল কেহ-বা হাসিল, কেহ করিল ধিক্কার লজ্জাহীন অনার্যের হেরি অহংকার । উঠিল। গৌতম ঋষি ছাড়িয়া আসন বাহু মেলি',—বালকেরে করি আলিঙ্গন কহিলেন, “আব্ৰাহ্মণ নহ তুমি তাত,