পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>Qbr চয়নিক ংসারের সমুদ্র-শিয়রে । দেবগণ, মাঝে মাঝে এই স্বর্গ হইবে স্মরণ দূরস্বপ্ন-সম—যৰে কোনে অধরাতে সহসা হেরিব জাগি নির্মল শয্যাতে পড়েছে চন্দ্রের আলো, নিদ্রিতা প্রেয়সী, লুষ্ঠিত শিথিল বাহু, পড়িয়াছে খসি’ গ্রস্থি সরমের –মৃদু সোহাগচুম্বনে সচকিতে জাগি উঠি’ গাঢ় আলিঙ্গনে লতাইবে বক্ষে মোর- দক্ষিণ অনিল আনিবে ফুলের গন্ধ, জাগ্ৰত কোকিল গাহিবে মৃদুর শাখে । অয়ি দীনহীনা, অশ্রত্যাথি দুঃখাতুর জননী মলিন। অয়ি মর্ত্যভূমি, আজি বহুদিন পরে কাদিয়া উঠেছে মোর চিত্ত তোর তরে । যেমনি বিদায়দুঃপে শুষ্ক তই চোখ অশ্রুতে পুরিল—আমনি এ স্বৰ্গলোক অলস কল্পনাপ্রায় কোথায় মিলালো ছায়াচ্ছবি ; তব নীলকণশ, তব আলো, তব জনপূর্ণ লোকালয়—সিন্ধুতীরে সুদীর্ঘ বালুকাতট, নীল গিরিশিরে শুভ্র হিমরেখা, তরুশ্রেণীর মাঝারে নিঃশব্দ অরুণোদয়, শূন্য নদী-পারে অবনতমুখী সন্ধা—বিন্দু অশ্রুজলে যত প্রতিবিস্ব যেন দপণের তলে । পড়েছে আসিয়া ।