পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চপ্পনিক Sもア* করুণ কিশোর-কোকিল কণ্ঠে ক্ষুধার উৎস পড়িল টুটে, স্থির তপোবন শক্তি-মগন পাতায় পাতায় শিহরি’ উঠে । যে-গাথা গাহিল। সে কখনো অার হয়নি রচিত নারীর তরে, সে শুধু শুনেছে নির্মলা উষা নির্জন গিরিশিথর পরে । সে শুধু শুনেছে নীরব সন্ধ্যা নীল নির্বাক সিন্ধুতলে, শুনে গ’লে যায় আৰ্দ্ৰ হৃদয় শিশির শীতল অশ্রািজলে । হাসিয়া উঠিল পিশাচীর দল অঞ্চলতল অধরে চাপি । ঈষৎ রাসের তড়িৎ-চমক ঋষির নয়নে উঠিল কঁাপি । ব্যথিত চিত্তে ত্বরিত চরণে করজোড়ে পাশে দাড়াতু জাসি’, কহিস্থ,-—“হে মোর প্রভু তপোধন, চরণে আগত অধম দাসী ।” তীরে লয়ে তারে, সিক্ত অঙ্গ মুছান্স আপন পট্টবাসে । জাচ্চ পাতি বসি’ যুগল চরণ মুছিয়া লইল্প এ কেশপাশে ।