পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৯৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

১৮২

চয়নিকা

কুটুম্বিতা

কেরোসিন-শিখা বলে মাটির প্রদীপে—
ভাই ব’লে ডাকে। যদি দেব গলা টিপে’।
হেনকালে গগনেতে উঠিলেন চাঁদা,—
কেরোসিন বলি উঠে- এসো মোর দাদা।

—কণিকা

অসম্ভব ভালো

যথাসাধ্য-ভালো বলে, ওগো আরো-ভালো,
কোন স্বর্গপুরী তুমি করে থাকো আলো।
আরো ভালো কেঁদে কহে, আমি থাকি হায়
অকর্মণ্য দাম্ভিকের অক্ষম ঈর্ষায়।

—কণিকা

অকৃতজ্ঞ

ধ্বনিটিরে প্রতিধ্বনি সদা ব্যঙ্গ করে,—
ধ্বনি কাছে ঋণী সে যে পাছে ধরা পড়ে।

—কণিকা

উপকার-দত্ত

শৈবাল দিঘিরে বলে উচ্চ করি শির—
লিখে রেখো, এক ফোঁটা দিলেম শিশির।

—কণিকা