পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


〉ab" চয়নিক তোমার কাকন বাজে ঘনঘন ফেনায়ে উঠিছে দুগ্ধ ; পিয়াসী নয়নে ছিচু এক কোণে পরান নীরবে ক্ষুব্ধ । ( ১৩০৪ ) —কল্পনা পসারিনী ওগো পসারিনী দেখি আয়, কী রয়েছে তব পসরায় । এত ভার মরি মরি কেমনে রয়েছ ধরি’ কোমল করুণ ক্লাস্ত কায় । কোথা কোন রাজপুরে যাবে আরো কতদূরে কিসের দুরূহ দুরাশায় । সম্মুখে দেখো তে চাহি, পথের-মে সীমা নাহি, তপ্ত বালু অগ্নিবাণ হানে । পসারিনী কথা রাখো, দুর পথে যেয়োনাকো, ক্ষণেক দাড়াও এইখানে ॥ হেথা দেখে শাখা-ঢাকা বাধা বটতল ; কুলে কুলে ভরা দিঘি, কাকচক্ষু জল । ঢালু পাড়ি চারিপাশে কচিকচি কাচা ঘাসে ঘনশু্যাম চিকন-কোমল ; পাষাণের ঘাটখানি, কেহ নাই জনপ্রাণী, আম্ৰবন নিবিড় শীতল ।