পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক : అవి বিশ্বজোড়া অন্ধকার সকলেরি আপনার একেলার স্থান, কোথা হতে তারো মাঝে বিদ্যুতের মতো বাজে তোমার আহবান । দক্ষিণসমুদ্র-পারে, তোমার প্রাসাদ দ্বারে হে জাগ্রত রানী, বাজে না কি সন্ধ্যাকালে শাস্ত স্বরে ক্লাস্ত তালে বৈরাগ্যের বাণী । সেথায় কি মূক বনে ঘুমায় না পাখিগণে আঁধার শাখায় । তারাগুলি হমশিরে উঠে না কি ধীরে ধীরে নি:শব্দ পাখায় । লতাবিতানের তলে বিছায় না পুষ্পদলে নিভূত শয়ান ? হে অশ্রাস্ত শাস্তিহীন, শেষ হয়ে গেল দিন, এখনো আহবান ? রহিল রহিল তবে আমার আপন সবে, আমার নিরালা, মোর সন্ধ্যাদীপালোক পথ-চাওয়া দুটি চোখ, যত্বে গাথা মাল । খেয়া তরী যাক বয়ে গৃহ-ফেরা লোক লয়ে ওপারের গ্রামে, তৃতীয়ার ক্ষীণ শশী ধীরে পড়ে যাক খসি’ কুটীরের বামে । রাত্রি মোর, শাস্তি মোর, রহিল স্বপ্নের ঘোর, সুস্নিগ্ধ নির্বাণ, S 8