পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক আবার চলিহ্ল ফিরে বহি’ ক্লাস্ত নতশিরে তোমার আহবান ॥ বলো তবে কী বাজাব, ফুল দিয়ে কী সাজাব তব দ্বারে আজ, রক্ত দিয়ে কী লিখিব, প্রাণ দিয়ে কী শিখিব কী করি ব কাজ । যদি আখি পড়ে চুলে, শ্লথ হস্ত যদি ভুলে পূর্ব নিপুণতা, বক্ষে নাহি পাই বল, চক্ষে যদি আসে জল, বেধে যায় কথা, চেয়োনাকো ঘৃণাভরে, কোরোনাকে অনাদরে মোরে অপমান, মনে রেখো, হে নিদয়ে, মেনেছিছু অসময়ে তোমার আহবান | সেবক আiমার মতে । রয়েছে সহস্ৰ শত তোমার দুয়ারে, তাহারা পেয়েছে ছুটি, ঘুমায় সকলে জুটি পথের দু-ধারে । শুধু আমি তোরে সেবি বিদায় পাইনে দেবী ডাকো ক্ষণে ক্ষণে ; বেছে নিলে আমারেই দুরূহ সৌভাগ্য সেই বহি প্রাণপণে । সেই গর্বে জাগি” রবো সারারাত্রি স্বারে তব অনিন্দ্র নয়ান, সেই গর্বে কণ্ঠে মম বহি বরমাল্য-সম তোমারি আহবান ॥