পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক SVలి(t গুরুদাসপুর গড়ে து? বন্দ যখন রন্দী হইল তুরানি সেনার করে সিংহের মতো শৃঙ্খলগত বাধি লয়ে গেল ধীরে দিল্লি নগর পরে । বন্দ সমরে বন্দী হইল গুরুদাসপুর গড়ে ॥ সম্মুখে চলে মোগল সৈন্য উড়ায়ে পথের ধূলি, ছিন্ন শিখের মুণ্ড লইয়া বর্ষাফলকে তুলি’ ৷ শিখ সাত শত চলে পশ্চাতে বাজে শৃঙ্খলগুলি । রাজপথ পরে লোক নাহি ধরে বাতায়ন যায় খুলি । শিপ গরজায় “গুরুজীর জয়" পরানের ভয় ভুলি’ ৷ মোগলে ও শিখে উড়াল আজিকে দিল্লি-পথের ধুলি । পড়ি গেল কাড়াকড়ি, আগে কেবা প্রাণ করিবেক দান তারি লাগি তাড়াতাড়ি । দিন গেলে প্রাতে ঘাতকের হাতে বন্দীর সারি সারি “জয় গুরুঞ্জীর” কহি’ শত বীর শত শির দেয় ডারি’ ॥ সপ্তাহকালে সাত শত প্রাণ নিঃশেষ হয়ে গেলে বন্দার কোলে কাজি দিল তুলি বন্দার এক ছেলে, কহিল, “ইহারে বধিতে হইবে নিজ হাতে অবহেলে ।” দিল তার কোলে ফেলে— কিশোর কুমার বাধা বাহু তার বন্দার এক ছেলে ॥ কিছু না কহিল বাণী, বন্দা সুধীরে ছোট ছেলেটিরে লইল বক্ষে টানি । । ক্ষণকালতরে মাথার উপরে রাখে দক্ষিণপাণি,