পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৭৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চয়নিক তারা নিশি-দিশি জাগাইছে চিতে বিরহ-বেদনা সঘনে । পাশে আছে যারা তাদেরি হারায়ে ফিরে প্রাণ সারা গগনে । তৃণে পুলকিত যে-মাটির ধরা লুটায় আমার সামনে— সে আমায় ভাকে এমন করিয়া কেন যে, কব তা কেমনে । মনে হয় যেন সে-ধূলির তলে যুগে যুগে আমি ছিন্থ তৃণে জলে, সে-দুয়ার খুলি কবে কোন ছলে বাহির হয়েছি ভ্রমণে । সেই মূক মাটি মোর মুখ চেয়ে লুটায় আমার সামনে ॥ নিশার আকাশ কেমন করিয়া তাকায় আমার পানে সে । লক্ষ যোজন দূরের তারকা মোর নাম যেন জানে সে । যে-ভাষায় তারা করে কানাকানি সাধ্য কী আর মনে তাহা আনি ; চিরদিবসের ভুলে-যাওয়া বাণী কোন কথা মনে আনে সে । অনাদি উষার বন্ধু আমার তাকায় আমার পানে সে । >Vア Šግ©