পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

১২

চয়নিকা

আকাশ, এসো এসো, ডাকিছ বুঝি ভাই,
গেছি তো তোরি বুকে আমি তো হেথা নাই।
প্রভাত আলো সাথে ছড়ায় প্রাণ মোর,
আমার প্রাণ দিয়ে ভরিব প্রাণ তোর।
ওঠো হে ওঠো রবি, আমারে তুলে লও,
অরুণ-তরী তব পুরবে ছেড়ে দাও।
আকাশ-পারাবার বুঝি হে পার হবে—
আমারে লও তবে—আমারে লও তবে।
কে তুমি মহাজ্ঞানী, কে তুমি মহারাজ,
গরবে হেলা করি’ হেলো না তুমি আজ।
বারেক চেয়ে দেখো আমার মুখপানে,
উঠেছে মাথা মোর মেঘের মাঝখানে।
আপনি আসি ঊষা শিয়রে বসি’ ধীরে,
অরুণ-কর দিয়ে মুকুট দেন শিরে,
নিজের গলা হতে কিরণমালা খুলি’,
দিতেছে রবি-দেব আমার গলে তুলি।
ধূলির ধুলি আমি রয়েছি ধূলি ’পরে,
জেনেছি ভাই ব’লে জগৎ চরাচরে।

—প্রভাত সংগীত

রাহুর প্রেম

শুনেছি আমারে ভালো লাগে না,
নাই বা লাগিল তোর,
কঠিন বাঁধনে চরণ বেড়িয়া,
চিরকাল তোরে রবো আঁকড়িয়া,
কঠিন লৌহ-ডোর।