পাতা:চয়নিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩০৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাশের বনে শূন্ত নদীর তীরে আমি এসে শুধাই তারে ডেকে “একলা পথে কে তুমি যাও ধীরে অণচল আড়ে প্রদীপথানি ঢেকে, আমার ঘরে হয়নি আলো জালা দেউটি তব হেথায় রাখো বালা ৷” গোধূলিতে দুটি নয়ন কালে ক্ষণেক তরে আমার মুখে তুলে । সে কহিল "ভাসিয়ে দেব অালো দিনের শেষে তাই এসেছি কুলে ।” চেয়ে দেখি দাড়িয়ে কাশের বনে প্রদীপ ভেসে গেল অকারণে ॥ ভরা সাজে অণধার হয়ে এলে আমি এসে শুধাই ডেকে তারে “তোমার ঘরে সকল অালো জেলে এ দীপখানি সপিতে যাও কারে, আমার ঘরে হয়নি আলো জালা দেউটি তব হেথায় রাখে। বালা ।” আমার মুখে দুটি নয়ন কালো ক্ষণেক তরে রৈল চেয়ে ভুলে, সে কহিল “অামার এ যে আলো আকাশপ্রদীপ শূন্যে দিব তুলে ।” চেয়ে দেখি শূন্ত গগনকোণে প্রদীপখানি জলে অকারণে ॥